শবে কদর বা লাইলাতুল কদর নামাজের সঠিক নিয়ম নিয়ত ও তারিখ ২০২৪

প্রিয় পাঠক বিন্দু আজকে আমি শবে কদর বা লাইলাতুল কদর নামাজের সঠিক নিয়ম নিয়ত ও তারিখ ২০২৪ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করবো। আপনি শবে কদর বা লাইলাতুল কদর নামাজের সঠিক নিয়ম নিয়ত ও তারিখ ২০২৪ সম্পর্কে যে তথ্যটি খুজছেন এখন আপনি সঠিক জায়গায় আছেন।

এই আর্টিকেলটির মাধ্যমে আপনি শবে কদর বা লাইলাতুল কদর নামাজের সঠিক নিয়ম নিয়ত ও তারিখ ২০২৪ সম্পর্কে এ টু জেড তথ্য জানতে পারবেন তাই অবশ্যই এই লিখাটি মনোযোগ দিয়ে পড়ুন সকল সঠিক তথ্য পেয়ে যাবেন ইনশাল্লাহ।

শবে কদর অর্থ কি

প্রিয় পাঠক বিন্দু আপনাদের মধ্যে অনেকে জানেন না শবে কদর অর্থ কি এখন আমি আপনাদেরকে জানিয়ে দেবো শবে কদর অর্থ কি। শবে কদর একটি ফারসি শব্দ যা লাইলাতুল কদর নামে পরিচিত লাইলাতুল কদর হচ্ছে আরবি শব্দ এর অর্থ মহামান্বিত রাত বা পবিত্র রজনী।

হাজার মাসের চেয়ে উত্তম হচ্ছে লাইলাতুল কদর রাত বা শবে কদরের রাত। কোটি কোটি মুসলমানদের জন্য এটি একটি মহিমান্বিত রাত যা মহাসম্মান ও মর্যাদাপূর্ণ একটি রাত। সংক্ষেপে বলতে গেলে বলা যায় শবে কদর অর্থ হলো পবিত্র রজনী বা মহিমান্বিত রাত যা অনেক সম্মান-মর্যাদা পূর্ণ একটি রাত। আশা করি বিষয়টি এখন বুঝতে পেরেছেন।

লাইলাতুল কদর কেমন প্রকৃতির রাত

আপনাদের মধ্যে অনেকে জানতে চান যে লাইলাতুল কদর কেমন প্রকৃতির রাত। লাইলাতুল কদর হলো হাজার মাসের চেয়ে উত্তম এবং শ্রেষ্ঠ ও পবিত্র রাত। কেননা এই রাত্রিতেই মুসলমানদের সর্বশ্রেষ্ঠ ধর্মগ্রন্থ আল কোরআন নাজিল করা হয়েছিল। তবে আল্লাহ তা’আলা পবিত্র কুরআন নির্দিষ্ট করে বলেননি যে লাইলাতুল কদর রাত কি কবে। শুধুমাত্র কিছু ধারণা দিয়েছেন যে রমজান মাসের শেষ বেজুড় রাতগুলো হচ্ছে লাইলাতুল কদর রাত।

শবে কদর বা লাইলাতুল কদর নামাজের সঠিক নিয়ম নিয়ত ও তারিখ
শবে কদর বা লাইলাতুল কদর নামাজের সঠিক নিয়ম নিয়ত ও তারিখ

অর্থাৎ একুশে রমজান ২৩ শে রমজান ২৫ শে রমজান ২৭শে রমজান এবং ২৯ শে রমজান। রমজানের এই বিজোড় রাতগুলোকে মুসলমানদেরকে তালাশ করতে বলা হয়েছে কেননা এই রাতগুলোই হচ্ছে হাজার মাসের কিংবা হাজার বছরের চেয়ে উত্তম শ্রেষ্ঠ রজনী বা রাত। আশা করি প্রিয় পাঠক বিন্দু এখন আপনি বুঝতে পেরে গেছেন লাইলাতুল কদর কেমন প্রকৃতির রাত।

শবে কদর ২০২৪ কত তারিখে

প্রিয় পাঠক বিন্দু আপনারা অনেকে জানতে চেয়েছেন শবে কদর ২০২৪ কত তারিখে। তাহলে চলুন এখন আপনাদেরকে আমি জানিয়ে দেই শবে কদর ২০২৪ কত তারিখে থেকে শুরু হবে। তার আগে বলে নি যে শবে কদর রাত হচ্ছে রমজানের শেষ বিজোড় ১০ দিন। আর সেজন্য এখানে স্পষ্ট করে বলা যায় যে শবে কদরের রাত মোট পাঁচ দিন।

আরো পড়ুনঃ রমজান মাসে রোজার ফজিলত ও গুরুত্ব সঠিক ভাবে জেনে নিন

অর্থাৎ ২১শে রমজান ২৩শে রমজান ২৫শে রমজান ২৭শে রমজান এবং ২৯শে রমজান শবে কদরের রাত হিসেবে পালিত হবে। আর সেই হিসেবে বলা যায় শবে কদর ২০১৪ ৩১ তারিখ দিবাগত রাত থেকে শুরু হবে। অর্থাৎ চলতি বছরের ২০২৪ সালের ৩১ মার্চ তারিখ দিবাগত রাত রবিবার শবে কদরের প্রথম রাত। শবে কদর ২০২৪ কত তারিখে এবার চলুন তাহলে পয়েন্ট আকারে তথ্যগুলো জেনে নিন।

  1. শবে কদর ২০২৪ ৩১ মার্চ তারিখে রোজ রবিবার ২১ রমজান দিবাগত রাত প্রথম রজনী।
  2. শবে কদর ২০২৪ ০২ এপ্রিল তারিখে রোজ মঙ্গলবার ২৩ রমজান দিবাগত রাত দ্বিতীয় রজনী।
  3. শবে কদর ২০২৪ ০৪ এপ্রিল তারিখে রোজ বৃহস্পতিবার ২৫ রমজান দিবাগত রাততৃতীয় রজনী।
  4. শবে কদর ২০২৪ ০৬ এপ্রিল তারিখে রোজ শনিবার ২৭ রমজান দিবাগত রাত চতুর্থ রজনী।
  5. শবে কদর ২০২৪ ০৮ এপ্রিল তারিখে রোজ সোমবার ২৯ রমজান দিবাগত রাত চতুর্থ রজনী।

উপরোক্ত এই পাঁচটি রাত হচ্ছে শবে কদর ২০২৪ এর তারিখ। এখানে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ তারিখ হচ্ছে ২৫ শে রমজান দিবাগত রাত বৃহস্পতিবার এবং ২৭শে রমজান দিবাগত রাত শনিবার এই দুটি রাতকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয় শবে কদরের রাত হিসেবে বা লাইলাতুল কদর রাতে হিসেবে। আশা করি এখন আপনারা জানতে পেরে গেছেন শবে কদর ২০২৪ কত তারিখে ২৭ শে রমজান দিবাগত রাত ৪ এপ্রিল রোজ শনিবার।

শবে কদর কত তারিখ

অনেকে জানতে চেয়ে থাকেন সবে কদর কত তারিখ। আশা করি আপনি যদি আমার এই লেখাটি সম্পূর্ণ পড়ে থাকেন তাহলে উপরে আমি বলেই দিয়েছি চলতি বছরে অর্থাৎ ২০২৪ সালে শবে কদর কত তারিখে এবং কোন কোন দিনে সব কিছু উপরে সঠিক এবং স্পষ্টভাবে তুলে ধরেছে আশা করি লেখাটি পড়ে নিলে আপনি শবে কদর কত তারিখ জানতে পেরে যাবেন।

লাইলাতুল কদর ২০২৪

লাইলাতুল কদর ২০২৪ থেকে অসংখ্য মানুষ গুগলে সার্চ করে থাকেন। আপনারা অনেকে লাইলাতুল কদর ২০২৪ কত তারিখে হবে সেটি জানেন না আর সেজন্যই এটি লিখে সার্চ করে থাকেন। তবে আপনি যদি আমার এই আর্টিকেলটি সম্পন্ন মনোযোগ দিয়ে পড়ে থাকেন।

শবে কদর বা লাইলাতুল কদর নামাজের সঠিক নিয়ম নিয়ত ও তারিখ
শবে কদর বা লাইলাতুল কদর নামাজের সঠিক নিয়ম নিয়ত ও তারিখ

তাহলে অবশ্যই এতক্ষণে জেনে গেছেন লাইলাতুল কদর ২০১৪ কত তারিখে বা কোন সময়ে কোন কোন দিনে। তারপরও আপনাদের সুবিধার্থে আমি আরো একবার আপনাদেরকে জানিয়ে দিচ্ছি লাইলাতুল কদর ২০২৪ এর সঠিক তারিখ গুলো।

  1. শবে কদর ২০২৪ ৩১ মার্চ রোজ রবিবার ২১ রমজান দিবাগত রাত প্রথম রজনী।
  2. শবে কদর ২০২৪ ০২ এপ্রিল রোজ মঙ্গলবার ২৩ রমজান দিবাগত রাত দ্বিতীয় রজনী।
  3. শবে কদর ২০২৪ ০৪ এপ্রিল রোজ বৃহস্পতিবার ২৫ রমজান দিবাগত রাততৃতীয় রজনী।
  4. শবে কদর ২০২৪ ০৬ এপ্রিল রোজ শনিবার ২৭ রমজান দিবাগত রাত চতুর্থ রজনী।
  5. শবে কদর ২০২৪ ০৮ এপ্রিল রোজ সোমবার ২৯ রমজান দিবাগত রাত চতুর্থ রজনী।

লাইলাতুল কদর কবে

আপনাদের মধ্যে অনেকে জানতে চেয়েছেন যে লাইলাতুল কদর কবে? লাইলাতুল কদর শুরু হবে ২১শে রমজান দিবাগত রাত রবিবার। এবং ২৩শে রমজান দিবাগত রাত রোজ মঙ্গলবার। ২৫শে রমজান দিবাগত রাত বৃহস্পতিবার, ২৭ শে রমজান দিবাগত রাত শনিবার এবং সর্বশেষ লাইলাতুল কদর রাতটি হবে ২৯শে রমজান রোজ সমবার। আশা করি প্রিয় পাঠকের জন্য এখন আপনি লাইলাতুল কদর কবে জানতে পেরে গেছেন।

আরো পড়ুনঃ হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর স্ত্রীদের নাম ও বয়স

যেহেতু পবিত্র ইসলাম ধর্মে লাইলাতুল কদরের সঠিক উল্লেখ করা নাই সেহেতু লাইলাতুল কদর রমজান মাসের শেষ বেজুড় যে পাঁচটি রজনী পাওয়া যায় সেই পাঁচটি রজনীতে লাইলাতুল কদর হিসেবে ধরা হয়। তবে এই রাত গুলোর কোন রাত্রি যে একদম সঠিক সেই সম্পর্কে কোথাও সঠিক তথ্য দেওয়া নাই। তাই উপরোক্ত তথ্যগুলো চলতি বছরের লাইলাতুল কদর রাতের সঠিক তারিখগুলো তুলে ধরা হয়েছে।

লাইলাতুল কদর এর ফজিলত

এখন আমরা জেনে নেব লাইলাতুল কদর এর ফজিলত। পবিত্র আল কুরআনের লাইলাতুল কদরের ফজিলত সম্পর্কে বলা হয়েছে এ রাত্রি হচ্ছে তোমাদের জন্য ভাগ্য রজনী। এবং দুনিয়াতে যত রাত এবং রজনী রয়েছে সকল রাতকে একত্রে করলে হাজার মাসের চেয়ে শ্রেষ্ঠ এবং মহাসম্মানিত রাত হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে লাইলাতুল কদর রাতকে।

শবে কদর বা লাইলাতুল কদর নামাজের সঠিক নিয়ম নিয়ত ও তারিখ
শবে কদর বা লাইলাতুল কদর নামাজের সঠিক নিয়ম নিয়ত ও তারিখ

কেননা এই রাত্রিতেই মুসলমানদের সর্বশ্রেষ্ঠ ধর্মগ্রন্থ আল কুরআন নাযিল করা হয়েছিল। আল কুরআন নাযিল করার কারণে এই রাতটিকে পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ রাত হিসেবে ধরা হয়ে থাকে। তবে মহান আল্লাহতালা সঠিক করে বলেন নি যে লাইলাতুল কদর রাত্রি কবে কখন। শুধুমাত্র ধারণা দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে রমজানের শেষ বিজোড় রাত গুলোকে লাইলাতুল কদর রাত হিসেবে ধরা হয়ে থাকে।

শুধুমাত্র সর্ব শ্রেষ্ঠ গ্রন্থ আল কুরআন নাযিল হওয়ার কারণে লাইলাতুল কদরের ফজিলত অতুলনীয় ও অসীম। তাই লাইলাতুল কদর এর ফজিলত বলে শেষ করা যাবে না। লাইলাতুল কদরের ফজিলত হিসেবে যদি ধরা হয় কোন ব্যক্তি যদি এই রাতে এক রাকাত নামাজ পড়ে তাহলে সেই নামাজের যে পরিমাণ নেকি হবে হাজার মাস ইবাদত করে সেই পরিমাণ নেকি অর্জন করতে পারবে না একজন মুসলিম বা মমিনগণ।

আল্লাহতালা পবিত্র কুরআন নাযিল করার পরে সেই কোরআনের ভিতরেই বলে দিয়েছেন। রমজান মাস এমন একটি মাস যে মাসে কোরআন নাজিল করা হয়েছে মানবের মুক্তির দিশারী ও হিদায়াতের সুস্পষ্ট নিদর্শন রূপে কোরআনের সূরা আল বাকারা’র ১৮৫ নাম্বার আয়াতে বলা হয়েছে। আল্লাহ তাআলা পবিত্র কুরআনে আরও বলেন এই কুরআন যারা আঁকড়ে ধরবে তাদের জন্য রয়েছে মুক্তির পথ এবং চিরসুখের স্থান জান্নাত।

আর যারা এর অমর্যাদা করবে তাদের জন্য রয়েছে বেদনাদায়ক শাস্তি এবং ভয়ানক জাহান্নাম। তাই অবশ্যই প্রত্যেকটি মুসলমানকে লাইলাতুল কদর রজনের ফজিলত সম্পর্কে জানা প্রয়োজন। আপনি যদি আমার এই আর্টিকেলটি সম্পন্ন মনোযোগ দিয়ে পড়ে থাকেন তাহলে নিশ্চয়ই জেনে গেছেন লাইলাতুল কদর এর ফজিলত কি পরিমান অসীম।

শবে কদর নামাজ কত রাকাত – laylatul qadr 2024 namaz

প্রিয় পাঠক বিন্দু আপনাদের মধ্যে অনেকে জানতে চান যে শবে কদরের নামাজ laylatul qadr 2024 namaz কত রাকাত? তাহলে চলুন এখন আমি আপনাকে সঠিক ভাবে জানিয়ে দিই শবে কদর নামাজ কত রাকাত হয়। শবে কদর অর্থাৎ লাইলাতুল কদর হচ্ছে মুসলমানদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি রজনী।

এবং এই রজনী শুধুমাত্র বছরে একবারই পাওয়া যায়। আর সেই জন্য অনেকেই কিন্তু শবে কদর নামাজ কত রাকাত হয় বা পড়তে হয় জানেন না কিংবা জেনেও ভুলে যান। তাদের জন্যই আজকের আমার এই লেখাটি। আপনি যদি সম্পূর্ণ লেখাটি মনোযোগ দিয়ে পড়েন তাহলে আপনি জেনে যাবেন নামাজ কত রাকাত।

আরো পড়ুনঃ মহিলাদের ঈদের নামাজ পড়ার নিয়ম ও নিয়ত নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য

মুসলিম হিসেবে আমরা অনেকেই জানি যে শবে কদর লাইলাতুল কদর অন্যান্য রাতের চেয়ে অসংখ্য বা হাজারগুনে উত্তম একটি রাত্রি। তাই শবে কদরের নামাজ কত রাকাত সেই সম্পর্কে নির্দিষ্ট কোন নিয়ম বা আইন নাই। লাইলাতুল কদর রাতে একজন মুসলিম বান্দা দুই রাকাত করে নফল নামাজ যত সময় ধরে এবং যত মনোযোগ সহকারে পড়বে ততই নেকি লেখা হবে তার নামে।

অর্থাৎ শবে কদর নামাজ কত রাকাত সেই সম্পর্কে ধরা বাধা কোন নিয়ম পদ্ধতি না থাকলেও আপনাকে অবশ্যই ২ রাকাত ২ রাকাত করে নফল নামাজ হিসেবে পড়তে হবে এবং আপনি চাইলে যত খুশি তত নামাজ পড়তে পারেন এতে কোন সমস্যা নাই। তবে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন অন্যান্য নামাজের মত যাতে এটি তাড়াহুড়া করে না পড়া হয়।

আপনি যত সময় নিয়ে এবং যত ধীরগতিতে লাইলাতুল কদরের নামাজ পড়বেন আপনার জন্য ততই ভালো সেটি। আশা করি শবে কদরের নামাজ কত রাকাত এখন আপনি সঠিক তথ্যটি জানতে পেরে গেছেন। তারপরও আরো একবার বলে নেই যে শবে কদরের নামাজ ২ রাকাত করে নফল নামাজ পড়তে হবে। যতক্ষণ ইচ্ছা ততক্ষণ নামাজ পড়তে পারেন ফজরের নামাজের আগ পর্যন্ত।

শবে কদরের নামাজের নিয়ত

শবে কদরের নামাজের নিয়ত সম্পর্কে এখন আমরা জেনে নিব সঠিক তথ্যটি। মুসলিম হিসেবে আমরা জানি যে প্রত্যেকটা নামাজেরই নিয়ত রয়েছে। নামাজ শুরু করার আগেই সেই নিয়ত টি আমাদেরকে বেঁধে নিতে হয়।

তেমনিভাবে শবে কদরের নামাজের নিয়ত রয়েছে একটি। আর সেটি এখন আমরা জেনে নিব তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক। প্রথমে জেনে নিব শবে কদরের নামাজের নিয়ত আরবিতে।

أحضر نويتو أوتشاليا ليلاهي تايالا راكتاي تشالاتي ليلة القدر السرة متوازيهان إلى جيهاتيل كباتيش شريفاتي الله أكبر

বাংলা উচ্চারণঃ নাওয়াইতু আন উছাল্লিয়া লিল্লাহি তায়া’লা রাকআ’তাই ছালাতি লাইলাতিল কদর-নাফলি, মুতাওয়াজ্জিহান ইলা-জিহাতিল কা’বাতিশ শারীফাতি আল্লাহু আকবার।

উপরোক্ত নিয়তিটি হলো আরবিতে যার বাংলা অর্থ: আমি কাবামুখী হয়ে আল্লাহর (সন্তুষ্টির) জন্য শবে কদরের দুই রাকাত নফল নামাজ পড়ার নিয়ত করলাম, আল্লাহু আকবার।

শবে কদরের নামাজের নিয়ম

আপনি আপনাদের মধ্যে অনেকে জানতে চান শবে কদরের নামাজের নিয়ম কি। নির্দিষ্ট করে আসলে শবে কদরের নামাজের ধরা বাধা কোন নিয়ম নাই। আপনাকে দুই রাকাত করে নফল নামাজ পড়তে হবে এটাই নিয়ম। এবং সেই নামাজ হতে হবে অনেক ধীর গতিতে ধীরে সুস্থ্যে একমাত্র আল্লাহকে খুশি করার জন্য।

শবে কদরের নামাজে দাড়িয়ে গেলে আপনার দুনিয়াবী সকল চিন্তা মুছে ফেলতে হবে। এমন ভাবে এই নামাজ পড়তে হবে যাতে করে আপনি মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের সাথে কথা বলছেন। তার শেষ দায় এমনভাবে মশগুল হতে হবে যাতে করে দুনিয়ার সকল চিন্তা ভাবনা আপনি ভুলে যান এই মুহূর্তের মধ্যে টুকু সময়ে।

আরো পড়ুনঃ রমজান মাসে রোজার ফজিলত ও গুরুত্ব সঠিক ভাবে জেনে নিন

অর্থাৎ শবে কদরের নামাজের নিয়ম দুই রাকাত নফল নামাজ পড়া এইভাবে আপনাকে সারা রাত্রি দুই রাকাত দুই রাকাত করে নফল নামাজ পড়তে হবে এটাই সঠিক নিয়ম।এছাড়া আর বাড়তি কোন নিয়ম-কানুন বলা নাই।

শবে কদর রাতের দোয়া – রমজানের শেষ ১০ দিনের দোয়া

শবে কদর রাতের দোয়া সম্পর্কে এখন আমরা জেনে নেব। আপনি চাইলে শবে কদর রাতে কোরআন শরীফ থেকে যেকোনো ধরনের দোয়া গুলোই পড়তে পারেন এখন আমি  শবে কদর রাতের দোয়া – রমজানের শেষ ১০ দিনের দোয়া সম্পর্কে আলোচনা করবো। শবে কদর রাতে যে কোন দোয়া পড়লেও নির্দিষ্ট করে লাইলাতুল কদর রাতের দোয়া রয়েছে আর তা হলঃ

শবে কদর রাতের দোয়া আরবীতেঃ

للّهمّ إنّي أسألُك العافية في الدّنيا والآخرة، اللّهمّ إنّي أسألك العفو والعافية في ديني ودنياي وأهلي ومالي

উপরোক্ত শবে কদর রাতের দোয়াটির বাংলা উচ্চারণ হলোঃ

আল্লাহুম্মা ইন্নি আসআলুকাল আফিয়াতা ফিদ-দুনইয়া ওয়াল আখিরা। আল্লাহুম্মা ইন্নি আসআলুকাল আফওয়া ওয়াল আ-ফিয়াতা ফি দিনি ওয়া দুনইয়ায়া ওয়া আহলি ওয়া মালি। – আল আদাবুল মুফরাদ।

যার বাংলা অর্থ হলোঃ

হে আল্লাহ! আমি আপনার নিকট দুনিয়া ও আখেরাতের অনুগ্রহ চাই। হে আল্লাহ! আমি আপনার নিকট আমার ধর্ম, আমার জাগতিক জীবন, আমার পরিবার ও সম্পদের ব্যাপারে ক্ষমা ও অনুগ্রহ প্রার্থনা করছি।

শবে কদরের নামাজের নিয়ম ও দোয়া

প্রিয় পাঠক বিন্দু আপনারা অনেকেই শবে কদরের নামাজের নিয়ম ও দোয়া সম্পর্কে জানতে চাই। তাদের জন্যই আজকের আমার এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ লেখা আপনি যদি আমার এই লেখাটি সম্পূর্ণ মনোযোগ দিয়ে পড়ে থাকেন। তাহলে এতক্ষণে আপনি নিশ্চয় জেনে গেছেন শবে কদরের নামাজের নিয়ম কি এবং শবে কদরের নামাজের দোয়া কি।

তারপরও আপনারা যেহেতু শবে কদরের নামাজের নিয়ম ও দোয়া লিখে সার্চ করে থাকেন তাই এখন আমি আপনাকে জানিয়ে দেবো শবে কদরের নামাজের নিয়ম ও দোয়া বিষয়টি। আপনারা ইতিমধ্যে জেনে গেছেন যে শবে কদরের নামাজের নির্দিষ্ট কোন ধারা বাধা নিয়ম কানুন নেই আপনি চাইলে ২ রাকাত করে নফল নামাজ পড়তে পারেন সারারাত।

আর শবে কদরের নামাজের নিয়ম ও দোয়া হলোঃ আল্লাহুম্মা ইন্নি আসআলুকাল আফিয়াতা ফিদ-দুনইয়া ওয়াল আখিরা। আল্লাহুম্মা ইন্নি আসআলুকাল আফওয়া ওয়াল আ-ফিয়াতা ফি দিনি ওয়া দুনইয়ায়া ওয়া আহলি ওয়া মালি। – আল আদাবুল মুফরাদ।

যার বাংলা অর্থঃ হে আল্লাহ! আমি আপনার নিকট দুনিয়া ও আখেরাতের অনুগ্রহ চাই। হে আল্লাহ! আমি আপনার নিকট আমার ধর্ম, আমার জাগতিক জীবন, আমার পরিবার ও সম্পদের ব্যাপারে ক্ষমা ও অনুগ্রহ প্রার্থনা করছি।

আশা করি পাঠক বিন্দু এখন আপনি শবে কদর বা লাইলাতুল কদর নামাজের সঠিক নিয়ম নিয়ত ও তারিখ ২০২৪ সঠিকটি জানতে পেরে গেছে। সেই সাথে আপনি জানতে পেরে গেছেন শবে কদরের রাতের নিয়ম নিয়ত সম্পর্কে। এছাড়াও আপনি এই আর্টিকেলটি সম্পন্ন মনোযোগ দিয়ে পড়ে থাকলে জানতে পেরে গেছেন শবে কদর কবে ২০২৪। শবে কদর ২০২৪ কত তারিখে।

Assalamu Alaikum! Hello world, I am Md. Hafijul Islam (mhihafijul). I am a Bangladeshi SEO expert. And I have been writing high quality Bengali content for a long time. I can write very nice SEO friendly articles. Along with that we do onpage seo, offpage seo and technical seo in proper guidelines. For which every article I write ranks on Google's fast page.

Sharing Is Caring:

Leave a Comment

error: Content is protected !!