নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন শুরু আবেদন করবেন যেভাবে A-Z সমাধান

5/5 - (1 vote)

এখন পর্যন্ত অনেকে জানেন না যে কিভাবে অনলাইনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে হয়।এরই মধ্যে আবার নতুনভাবে ২৫ শে জুলাই থেকে শুরু হতে যাচ্ছে জন্ম নিবন্ধনের আবার নতুন আরেক নিয়ম। এই আর্টিকেল এর মাধ্যমে আজকে আমরা নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন শুরু আবেদন করবেন যেভাবে A-Z সমাধান জেনে নেব।

আপনি যদি নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধনের আবেদন করার সকল প্রক্রিয়া জানতে চান তাহলে অবশ্যই এই আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়ুন। এই লেখাটিতে আমি জন্ম নিবন্ধনের সকল খুঁটিনাটি বিষয় সঠিকভাবে তুলে ধরবো। তাহলে এবার চলুন নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন শুরু আবেদন করবেন যেভাবে A-Z সমাধান জেনে নিই।

পোষ্ট সূচিপত্রঃ নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন শুরু আবেদন করবেন যেভাবে A-Z সমাধান

  • ভূমিকাজন্ম নিবন্ধন
  • জন্ম নিবন্ধন যাচাই
  • জন্ম নিবন্ধন সংশোধন
  • জন্ম নিবন্ধন আবেদন
  • জন্ম নিবন্ধন অনলাইন
  • অনলাইন জন্ম নিবন্ধন যাচাই
  • জন্ম নিবন্ধন অনলাইন যাচাই
  • জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন চেক apps
  • জন্ম নিবন্ধন যাচাই কপি
  • নতুন জন্ম নিবন্ধন জন্য আবেদন
  • জন্ম নিবন্ধন নিয়ে শেষ কথা

ভূমিকা

আপনারা যারা এখনো জন্ম নিবন্ধনের আবেদন করতে জানেন না অনলাইনে কিংবা জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে হয় কিভাবে সেটি জানেন না তাদের জন্য আজকের আমার এই আর্টিকেলটি লেখা। আমি আপনাকে ১০০% গ্যারান্টি দিয়ে বলছি আপনি যদি এই আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়েন তাহলে জন্ম নিবন্ধন নিয়ে আপনার আর কোন ধরনের সমস্যা থাকবে না আপনি নিজেই অনলাইনে জন্ম নিবন্ধনের আবেদন করতে পারবেন। তবে সবচেয়ে বড় দুঃখের বিষয় জন্ম নিবন্ধন প্রতিনিয়তই সিস্টেম চেঞ্জ করছে এবং আপডেট নিয়মে হতে থাকছে।

যার ফলে আগের জন্ম নিবন্ধন বাতিল করে আবার নতুন ভাবে জন্ম নিবন্ধন করতে হচ্ছে। ঠিক এমন পরিবর্তনের প্রেক্ষিতে আবারও নতুন করে ১৫ জুলাই থেকে জন্ম সনদ ও মৃত্যুর সনদ নতুন নিয়মে তৈরি হবে। প্রথমত আমরা হাতে লেখা জন্ম নিবন্ধন পেয়েছিলাম। এবং এর পরবর্তীতে আমরা ডিজিটাল যে জন্ম নিবন্ধন পেয়েছি সেটি সাদা কালো তবে দুই পৃষ্ঠাতে লেখা ছিল একবারে বাংলা এবং অপজিটে ইংরেজি।

আরো পড়ুনঃ ভোটার আইডি কার্ড চেক ডাউনলোড করার সহজ নিয়ম

কিন্তু এখন নতুন নিয়মে যে জন্ম নিবন্ধন আবার হতে যাচ্ছে ২৫শে জুলাই থেকে সেটি হবে কালার প্রিন্ট। তাহলে বুঝতে পারছেন জন্ম নিবন্ধন কতটা আপডেট এর মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। যারা এনালগ থেকে ডিজিটাল করেছেন এবার ডিজিটাল থেকে এই কালার প্রিন্ট করে নিতে হবে। বর্তমানের কালার জন্ম নিবন্ধনের নমুনা কপি দেখুন। কপিরা*ইট ইস্যুর জন্য পিকচারটি বাঁকা করে দেয়া হলো আপনি চাইলে ডাউনলোড করে সোজা দেখতে পারেন।

কালার জন্ম নিবন্ধনের নমুনা কপি
কালার জন্ম নিবন্ধনের নমুনা কপি

জন্ম নিবন্ধন

একটি শিশু জন্মের পরেই তাকে অবশ্যই বাংলাদেশের নিয়ম অনুযায়ী জন্ম নিবন্ধন করতে হবে। তবে জন্ম নিবন্ধন এর নিয়ম আগে যতটা সহজ ছিল মাঝখানে ডিজিটাল করাতে অনেকখানি ঝামেলা পোহাতে হয়েছে সাধারণ মানুষদের। আগের জন্ম নিবন্ধন গুলোতে প্রচুর পরিমাণে ভুল থাকায় সেগুলো সংশোধন করে ডিজিটালের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। তবে ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন তৈরি করতে বিভিন্ন রকম সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে বাংলাদেশের নাগরিকদের কেননা মাঝেমধ্যেই এই জন্ম নিবন্ধন সার্ভারের ত্রুটি দেখা দিত।

তবে অনলাইনের মাধ্যমে ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন করাতে অনেক সুবিধা হয়েছে। এখন আর কেউ ডুবলিকেট ভাবে জন্ম নিবন্ধন তৈরি করতে পারবেনা জন্ম নিবন্ধন নাম্বার দিয়ে অনলাইনে সার্চ দিলে দেখা যাবে তার নাম পিতার নাম এবং অন্যান্য তথ্যাদি। একজন বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে জন্ম নিবন্ধনের গুরুত্ব অপরিসীম। আপনার যদি জন্ম নিবন্ধন না থেকে থাকে তাহলে আপনার দৈনন্দিন কাজে নানা রকম সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে। তাহলে আশা করি বুঝতে পেরেছেন জন্ম নিবন্ধন কি এবং জন্ম নিবন্ধন এর গুরুত্ব কতটুকু।

আরো পড়ুনঃ এসএমএস এর মাধ্যমে ভোটার তথ্য জানতে চাপ দিন

তবে জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল এর পর এবার যেটি আপডেট হবে সেটিতে থাকবে পাঁচটি বৈশিষ্ট্য। আরে নতুন নিয়মের জন্ম নিবন্ধন টি চালু হচ্ছে ২৫/৭/২০২৩ ইং তারিখ থেকে। আপনি যদি নতুন নিয়মটি আগে থেকে জেনে নেন তাহলে নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন শুরু কিভাবে করবেন বা আবেদন করবেন যেভাবে তার সঠিক নিয়ম জেনে নিতে পারবেন। তাহলে চলুন জেনে নেই কোন ৫টি বৈশিষ্ট্য থাকবে এই নতুন জন্ম নিবন্ধনে।

  • নতুন জন্ম নিবন্ধন এ বাংলাদেশ সরকারের লোগো এবং মাঝখানে জন্ম নিবন্ধন এর লোগো থাকবে।
  • জন্ম সনদদের সত্যতা যাচাই QR কোড থাকবে সাথে Bar Code জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন নম্বর থাকবে।
  • পূর্বের জন্ম সনদের তথ্য অপরিবর্তিত রেখে QR Code এবং Bar Code যুক্ত করা হবে।
  • নতুন জন্ম সনদে শুধুমাত্র নিবন্ধক নিবন্ধন সহকারীর স্বাক্ষর থাকবে ইংরেজিতে।
  • বাংলা ও ইংলিশে উভয় ভাষায় ব্যক্তির সকল তথ্য থাকবে।

জন্ম নিবন্ধন যাচাই

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই এর কয়েকটি প্রক্রিয়া রয়েছে আমরা সবগুলো প্রক্রিয়া একে একে জেনে নেব এই আর্টিকেলটির মাধ্যমে। যে কয়েকটি প্রক্রিয়া রয়েছে সকল প্রক্রিয়া বিস্তারিত তথ্য গুলো পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে জেনে নেব। তাহলে চলুন প্রথমে জেনে নেই জন্ম নিবন্ধন যাচাইয়ের প্রক্রিয়াগুলো কয়টি এবং কি কি।

  • নাম দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই
  • কোড দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই
  • জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই
  • ১৭ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন যাচাই
  • জন্ম নিবন্ধন আবেদন যাচাই

আমরা আজকে জন্ম নিবন্ধন যাচাইয়ের পাঁচটি প্রক্রিয়া নিয়ে বিস্তারিত কথা বলব এখন। এই পাঁচটি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার জন্য মানুষজন গুগলের সার্চ দিয়ে থাকেন। আসলে উপরোক্ত পাঁচটি বিষয়ে একই নিয়মে সার্চ দেওয়া গেলেও এদের নাম ভিন্ন ভিন্ন থাকায় অনেকেই এই বিষয়টি ভিন্ন মনে করে থাকেন। তবে জন্ম নিবন্ধন যাচাই প্রক্রিয়াটি একদমই সহজ। তাহলে চলুন আমরা উপরোক্ত পাঁচটি জন্ম নিবন্ধন যাচাইয়ের নিয়ম গুলো একে একে জেনে নিই।

নাম দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই

আপনি যদি আপনার নাম দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে আপনার নিকটস্থ ইউনিয়ন পরিষদে যেতে হবে আর আপনি যদি পৌরসভায় বসবাস করে থাকেন কিংবা সিটি কর্পোরেশনে তাহলে আপনাকে আপনার কাউন্সিলর অফিসে যেতে হবে। তাছাড়া আপনি নাম দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারবেন না কোনোভাবেই।

সাধারণ নাগরিকদের নাম দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার কোনরকম সিস্টেম চালু করা হয় নাই। শুধুমাত্র যদি আপনার জন্ম নিবন্ধন তথ্য সার্ভারের ডাটাবেজে সংরক্ষণ করা হয়ে থাকে তাহলেই আপনি আপনার নির্দিষ্ট জন্ম নিবন্ধন অফিস থেকে নাম দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে বা দেখতে পারবেন। আশা করি নাম দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাইয়ের ব্যাপারটি আপনি বুঝতে পেরেছেন।

কোড দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই

আমরা ইতিমধ্যেই জন্ম নিবন্ধন যাচাইয়ের পাঁচটি পদ্ধতি নাম জেনে গেছে। তার মধ্যে কোড দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করা খুবই সহজ একটি ব্যাপার। আপনি চাইলেই আপনার মোবাইল ফোনের মাধ্যমে *১৬১০০# ডায়াল করে খুব সহজে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারবেন।

*১৬১০০# ডায়াল করার পরে কিছু অপশন আসবে সেখান থেকে আপনি  Age Verification অপশনটি সিলেক্ট করে পরবর্তী অপশনে যাবেন এবং পরবর্তীতে Birth reg cert এই অপশনটি পাবেন। এই অপশনটি সিলেক্ট করার পরে আপনি পাবেন Reply with birth reg number  অপশনটি।

আরো পড়ুনঃ দলিল কত প্রকার হয়ে থাকে কোন দলিলের কাজ কি জানুন

এখানে আপনি আপনার জন্ম তারিখটি লিখবেন। এখানে জন্ম তারিখ লিখার সঠিক নিয়ম হচ্ছে প্রথমে দিন এবং পরে মাস তারপরে বছর এইভাবে লিখবেন। তারপরে আপনি আপনার মোবাইল থেকে সেন্ড বাটন অপশনে চাপ দিবেন। তাহলেই আপনার সামনে মেসেজ আকারে আপনার জন্ম নিবন্ধনের তথ্য চলে আসবে। আর এভাবে তথ্য বের করা কে কোড দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করা বলা হয়ে থাকে। আশা করি এবার তাহলে আপনি এবার নিজে নিজে কোড দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারবেন।

জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই

জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে হলে অবশ্যই আপনার একটি স্মার্ট ফোন থাকতে হবে অথবা কম্পিউটার থাকতে হবে। আপনি জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাইয়ের মাধ্যমে জানতে পারবেন যে আপনার জন্ম নিবন্ধনটি অনলাইনে আছে কিনা। আপনি হয়তো জানেন কিংবা জানেন না যে জন্ম নিবন্ধন যাচাই এর জন্য তাদের কোন অফিসিয়াল অ্যাপস নেই। তবে জন্ম নিবন্ধন অফিসের একটি অফিসিয়াল ওয়েবসাইট রয়েছে।

আর সেখানে আপনি জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারবেন খুব সহজে। তার জন্য আপনাকে প্রথমে অবশ্যই জন্ম নিবন্ধন এর ওয়েবসাইটে যেতে হবে। আপনি যদি জন্ম নিবন্ধনের ওয়েবসাইট না জেনে থাকেন তাহলে নিচে থাকা নীল রঙের লিংকটিতে ক্লিক দিন বা চাপ দিন তাহলেই আপনি জন্ম নিবন্ধনের ওয়েবসাইটে চলে যাবেন।

জন্ম নিবন্ধন যাচাই লিং চাপ দিন

এবার আপনি এখানে এই অপশন গুলো দেখতে পাবেন।

জন্ম নিবন্ধন যাচাই
জন্ম নিবন্ধন যাচাই

এই অপশন থেকে জন্ম তারিখের জায়গায় আপনার সঠিক জন্ম তারিখ দিন এবং উপরের ঘরটিতে আপনার ১৭ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন নম্বরটি দিন।এরপরে নিচের ক্যাপচারটি পূরণ করুন এখানে যেমন ৯৪-৬=৮৮ হয় আপনার বেলায় অন্য কেপচার আসতে পারে সেটি দেখে পূরণ করবেন সঠিকভাবে। তারপরে সার্চ অপশনটিতে ক্লিক দিবেন তাহলেই আপনার সামনে আপনার জন্ম নিবন্ধনের সকল তথ্য চলে আসবে। আশা করি জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করবেন কিভাবে সেটি এখন বুঝতে পেরে গেছেন।

১৭ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন যাচাই

১৭ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন যাচাই এবং জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই একই নিয়মে করা হয়ে থাকে। আপনি যদি ১৭ ডিজিট এর জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে হয় কিভাবে সেটি না জেনে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনি আমার উপরের জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাইয়ের লেখাটি সম্পূর্ণ ভালোভাবে মনোযোগ দিয়ে পড়ে নিতে পারেন। তাহলে আপনি জন্ম নিবন্ধন যাচাই করা শিখে যাবেন।

তাহলে আশা করি সূত্র ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন যাচাই করা নিয়ে আপনাকে আর নতুন ভাবে বোঝাতে হবে না। আপনি চাইলে খুব সহজেই জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই লেখাটি পড়ে নিলেই সমস্ত বিষয় সহজভাবে বুঝে যাবেন।

জন্ম নিবন্ধন আবেদন যাচাই

যারা নতুন জন্ম নিবন্ধনের জন্য অনলাইনে আবেদন করেছেন তারা অনেকে জানতে চান। জন্ম নিবন্ধনের আবেদন যাচাই করতে হয় কিভাবে। তাদের জন্যই এই আর্টিকেলটি লেখা আপনি যদি এই আর্টিকেলটি ভালোভাবে মনোযোগ দিয়ে পড়েন। তাহলে আপনি জন্ম নিবন্ধন আবেদন যাচাইয়ের সমস্ত প্রক্রিয়া জেনে যাবেন। জন্ম নিবন্ধন আবেদন যাচাই করতে হলে অবশ্যই আপনাকে প্রথমে জন্ম নিবন্ধনের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে।

আরো পড়ুনঃ ভাতার টাকা মোবাইলে দেখার সঠিক নিয়ম জেনে নিন

সেখানে গিয়ে আবেদনের অবস্থা নামে একটি অপশন পাবেন সেই অপশনে যেতে হবে। আপনি হয়তো জন্ম নিবন্ধনের ওয়েবসাইটে গিয়ে আবেদনের অবস্থা এই অপশনটি খুজে পেতে পারেন অথবা নাও পেতে পারেন। তাতে কোন সমস্যা নেই আপনি যদি খুঁজে না পান অপশনটি। তাহলে নিচে থাকা নীল রংয়ের উপর চাপ দিন তাহলে সরাসরি আবেদনের অবস্থা অপশনে নিয়ে যাবে আপনাকে।

জন্ম নিবন্ধন আবেদন যাচাই লিং চাপ দিন

এবার আপনি এখানে এই অপশন গুলো দেখতে পাবেন।

জন্ম নিবন্ধন আবেদন যাচাই
জন্ম নিবন্ধন আবেদন যাচাই

এখানে আপনি আবেদনের ধরন জায়গাটিতে জন্ম নিবন্ধন আবেদন এই অপশনটি সিলেক্ট করবেন এবং নিচের অ্যাপ্লিকেশন আইডির জায়গায় আপনি যখন অনলাইনে আবেদন করেছিলেন তখন একটি আইডি পাবেন সেই আইডিটি দিবেন। এরপরে জন্ম তারিখের জায়গায় আপনার সঠিক জন্ম তারিখ দিবেন। তাহলেই আপনি আপনার জন্ম নিবন্ধন আবেদন যাচাই এর সকল তথ্য পেয়ে যাবেন। আপনি চাইলে  আশা করি জন্ম নিবন্ধন যাচাইয়ের বিষয়টি এবার আপনি ভালোভাবে বুঝতে পেরে গেছেন।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন অথবা জন্ম নিবন্ধনের তথ্য সংশোধন করতে হলে অবশ্যই আপনাকে প্রথমে জন্ম নিবন্ধনের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে। সেখানে গিয়ে জন্ম তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদন নামে একটি অপশন পাবেন সেই অপশনে যেতে হবে। এই অপশনে যাওয়ার পরে আপনি কিছু নির্দেশনা দেখতে পাবেন নির্দেশনা গুলো ভালোভাবে পড়ে নিতে হবে আপনাকে তাহলে আপনি জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের জন্য কি কি লাগবে সেটি জানতে পেরে যাবেন।

আপনি যদি জন্ম নিবন্ধনের ওয়েবসাইটে গিয়ে জন্ম তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদন অপশনটি খুঁজে না পান তাহলে নিচে থাকা নীল রংয়ের লিংকটিতে চাপ দিন। তাহলে আপনি সরাসরি জন্ম তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদনের অপশনটিতে চলে যাবেন।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন লিং চাপ দিন

এবারে আপনার সামনে এ ধরনের একটি অপশন দেখাবে। ভালোভাবে ছবিটি ফলো করুন।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন
জন্ম নিবন্ধন সংশোধন

এই অপশনটি থেকে ভালোভাবে নির্দেশনাগুলো পড়ে নেয়ার পর। নিচে জন্ম নিবন্ধন নম্বর এর ঘরটিতে আপনার ১৭ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন নম্বরটি দিতে হবে এবং জন্ম তারিখের জায়গায় আপনার জন্ম তারিখ কে দিতে হবে। তাহলে আপনি জন্ম নিবন্ধন সংশোধন অপশনে প্রবেশ করতে পারবেন। আর সেখান থেকে আপনার যে নামটি সংশোধন করা দরকার সেটি ইচ্ছামত সংশোধন বা পরিবর্তন করে নিতে পারবেন।

আপনি আপনার নিজের নামের বানান ভুল থাকলে কিংবা পিতা মাতার নামের বানান ভুল থাকলে অথবা আপনার জন্ম তারিখ যদি ভুল থাকে এর সকল বিষয়গুলো এখান থেকে সংশোধন করে নিতে পারবেন। আশা করি জন্ম নিবন্ধন সংশোধন এর বিষয়টি আপনি এখন ভালোভাবে বুঝতে পেরে গেছেন এবং আপনি এখন চাইলে নিজে নিজেই জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন আবেদন

জন্ম নিবন্ধন নিয়ে আমরা ইতিমধ্যে অনেক কিছুই আলোচনা করে ফেলছি কিন্তু সর্বপ্রথম জন্ম নিবন্ধনের যে বিষয়টি সামনে আসে সেটি হল জন্ম নিবন্ধন আবেদন। আমরা এখনো জন্ম নিবন্ধনের আবেদন নিয়ে কোন কথা বলিনি। তবে এখন এই আর্টিকেলটির মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন আবেদন কিভাবে করতে হয় কোথা থেকে করতে হয় সকল কিছু বিস্তারিত তুলে ধরবো। তাই অবশ্যই এই লেখাটি আপনি মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।

তাহলে আপনি নিজে নিজেই জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে পারবেন। জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে হলে অবশ্যই আপনাকে তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে। আপনি যদি অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে চান তাহলে এখনই নিচে থাকা নীল রঙের অপশনটিতে চাপ দিন। তাহলে আপনি সরাসরি জন্ম নিবন্ধন আবেদন পেজটিতে চলে যাবেন।

জন্ম নিবন্ধন আবেদন লিং চাপ দিন

জন্ম নিবন্ধন আবেদন প্রথম ধাপ আপনি এই অপশনটি পাবেন

জন্ম নিবন্ধন আবেদন
জন্ম নিবন্ধন আবেদন

এখানে আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে আবেদন করেন। তাহলে জন্মস্থান অপশনটিতে ঠিক রেখে পরবর্তী অপশনে চাপ দিবেন। আর যদি আপনি বাংলাদেশ দূতাবাসে জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে চান তবে নিচের অপশনটিতে টিক দিবেন।

এরপর জন্ম নিবন্ধন আবেদন দ্বিতীয় ধাপে নিচের অপশনটি আসবে।

জন্ম নিবন্ধন আবেদন
জন্ম নিবন্ধন আবেদন

উপরের এই অপশনটি আসার পরে আপনাকে এখান থেকে প্রতিটি ঘর যথাযথ সঠিকভাবে পূরণ করতে হবে। ফাঁকা ঘরের বাম পাশে দেখুন লাল রঙের স্টার চিহ্ন দেওয়া রয়েছে। আর এই স্টার চিহ্ন দেওয়া প্রতিটি ঘর অবশ্যই পূরণ করতে হবে আপনি যদি একটা ঘরও বাদ দেন তাহলে পরবর্তী ধাপে যেতে পারবেন না। আর এখানে অবশ্যই আপনি আপনার সঠিক তথ্য দিয়ে ঘর গুলো পূরণ করবেন। সঠিকভাবে পূরণ হয়ে গেলে পরবর্তী অপশনটিতে ক্লিক করবেন।

এরপর জন্ম নিবন্ধন আবেদন তৃতীয় ধাপে নিচের অপশনটি আসবে।

জন্ম নিবন্ধন আবেদন
জন্ম নিবন্ধন আবেদন

তৃতীয় ধাপের এই অপশনে পিতা-মাতার নাম সঠিকভাবে পূরণ করে এবং পিতামাতার জাতীয়তা সঠিকভাবে দিয়ে পরবর্তী ধাপে যেতে হবে। পরবর্তী একেবারে সহজ তাই আর দিলাম না। পরবর্তী ধাপের অপশনে ফোন নম্বর দিয়ে পূরণ করে সাবমিট করে দিলেই আপনার জন্ম নিবন্ধন আবেদন হয়ে যাবে। জন্ম নিবন্ধন আবেদন হয়ে গেলে আপনাকে সেখান থেকে একটি আবেদন কোড দিবে এসএমএসে।

উক্ত কোডটি আপনার আবেদনপত্রের উপরেও দেখা যাবে। যদি আপনি আবেদন পত্রটি ডাউনলোড করে অথবা পিডিএফ করে প্রিন্ট দিয়ে নেন। আশা করি জন্ম নিবন্ধন এর আবেদন নিয়ে আপনার আর কোন ধরনের সমস্যা থাকবে না যদি আপনি আমার এই নিয়মে জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে পারেন।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন বলতে জন্ম নিবন্ধন আবেদন কেই বোঝানো হয়। আপনি যদি জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করতে না পেরে থাকেন তাহলে অবশ্যই আমার এই আর্টিকেলটির উপরে দেওয়ার জন্ম নিবন্ধন আবেদন লেখাটির সম্পূর্ণভাবে মনোযোগ দিয়ে দেখবেন এবং ছবিগুলো ভালোভাবে দেখে আবেদন করবেন।

আরো পড়ুনঃ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করার নিয়ম জেনে নিন

তাহলে আশা করি আপনি নিজে নিজে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করতে পারবেন। জন্ম নিবন্ধন অনলাইন আবেদন বিষয়টি একেবারে সহজ। আপনি আপনার নাম আপনার পিতা মাতার নাম এবং আপনার পূর্ণাঙ্গ ঠিকানা দিয়েই জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করতে পারবেন।

অনলাইন জন্ম নিবন্ধন যাচাই

অনলাইন জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে হলে অবশ্যই আপনাকে জন্ম নিবন্ধন এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে। জন্ম নিবন্ধন ওয়েব সাইটে যাওয়ার পরে সেখানে থেকে জন্ম নিবন্ধন তথ্য অনুসন্ধান অপশনটি খুঁজে বের করতে হবে। আপনি যদি এই অপশনটি খুঁজে না পান তাহলে নিচের নীল রঙের লিংকটিতে চাপ দিন তাহলে সরাসরি আপনি জন্ম নিবন্ধন তথ্য অনুসন্ধান অশান্তিতে চলে যাবেন।

জন্ম নিবন্ধন আবেদন যাচাই লিং চাপ দিন

লিংকটিতে চাপ দেওয়ার পর এখানে এরকম একটি অপশন দেখতে পাবেন।

অনলাইন জন্ম নিবন্ধন যাচাই
অনলাইন জন্ম নিবন্ধন যাচাইঅনলাইন জন্ম নিবন্ধন যাচাই

এখানে এই অপশন থেকে বার্থ রেজিস্ট্রেশন নাম্বার এর নিচে ফাঁকা ঘরটিতে আপনার জন্ম নিবন্ধনের ১৭ ডিজিটের নাম্বার দিতে হবে এবং নিচে ডেট অফ বার্থ অপশনটিতে আপনার সঠিক জন্ম তারিখ দিতে হবে। জন্ম তারিখ দেওয়ার ক্ষেত্রে এখানে সবার আগে জন্ম সাল দিতে হবে এবং তারপরে মাস এবং তারপরে দিন।

এরপরে নিচের ক্যাপচারটি পূরণ করে সার্চ অপশনে চাপ দিবেন তাহলেই আপনার অনলাইন জন্ম নিবন্ধন যাচাই পদ্ধতি এর মাধ্যমে সকল তথ্য চলে আসবে। যদি আপনার জন্ম নিবন্ধনের ডাটা সার্ভারে থাকে। আশা করি অনলাইন জন্ম নিবন্ধন যাচাই বিষয়টি এবারে বুঝতে পেরে গেছেন।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন যাচাই

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন যাচাই যাচাই করতে হলে অবশ্যই আপনাকে জন্ম নিবন্ধন এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে। জন্ম নিবন্ধন ওয়েব সাইটে যাওয়ার পরে সেখানে থেকে জন্ম নিবন্ধন তথ্য অনুসন্ধান অপশনটি খুঁজে বের করতে হবে। তারপরে আপনি আমার এই পোস্টে লেখা অনলাইন জন্ম নিবন্ধন পোস্টটি দেখে নিতে পারেন। অনলাইন জন্ম নিবন্ধন আর্টিকেলটি এই লেখার উপরে রয়েছে।

তাই আর দ্বিতীয়বার দিলাম না উপরের ওই নিয়মটি ফলো করলেই আপনার জন্ম নিবন্ধন অনলাইন যাচাই সঠিকভাবে সম্পন্ন করতে পারবেন। যদি আপনার জন্ম নিবন্ধনের ডাটা সার্ভারে থাকে। আশা করি জন্ম নিবন্ধন অনলাইন যাচাই বিষয়টি এবারে বুঝতে পেরেছেন। এবারে চলুন আমরা নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন শুরু আবেদন করবেন যেভাবে A-Z সমাধান পর্বে আরো তথ্য জেনে নিই।

জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন চেক apps

জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনেকগুলো নিয়ম রয়েছে। এবারে আমরা জানবো জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন চেক apps সম্পর্কে। অনেকে গুগলে সার্চ করে থাকেন যে জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন চেক apps এর মাধ্যমে আমি আমার জন্ম নিবন্ধন কিভাবে যাচাই করতে পারি। জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন চেক apps এর মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করা খুবই সহজ একটি পদ্ধতি। তার জন্য অবশ্যই আপনার কাছে একটি স্মার্ট ফোন থাকতে হবে অথবা অ্যান্ড্রয়েড যেকোনো ফোন হলেই হবে।

আরো পড়ুনঃ বাংলাদেশে কিডনির দাম কত জেনে নিন

শুধুমাত্র ফোন দিয়েই আপনি জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন চেক অ্যাপস ব্যবহার করতে পারবেন। তাহলে চলুন এবারে আমরা জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন চেক apps কোথায় পাব এবং কিভাবে এখানে জন্ম নিবন্ধন চেক করব সেই বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য জেনে নেই। জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন চেক apps ডাউনলোড করতে হলে অবশ্যই প্রথমে আপনাকে প্লে স্টোরে যেতে হবে। আপনি যদি জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন চেক apps তাতে কোন সমস্যা নাই।

এখন আমি এই পোস্টের নিচে দুটি জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন চেক apps দিয়ে দিচ্ছি। নিচে থাকা এই দুটি নীল রঙের যেকোনো একটিতে ক্লিক করলেই আপনি সরাসরি প্লে স্টোরের জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন চেক apps ইন্সটল অপশনে চলে যাবেন। তাহলে এখন নিচে থাকা নীল রংয়ের দুটি অপশনের মধ্যে যে কোন একটিতে চাপ দিন।

জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন চেক apps লিং চাপ দিন

জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন চেক apps 2য় লিং চাপ দিন

জন্ম নিবন্ধন যাচাই কপি

জন্ম নিবন্ধন যাচাই কপি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। কেননা আমাদের জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে হয়েছে কিনা তা জানার জন্য অবশ্যই জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে হয়। যাচাই করার বিভিন্ন রকম পদ্ধতির রয়েছে তার মধ্যে কয়েকটি পদ্ধতি নিয়ে আমি আমার এই আর্টিকেলটিতে বিস্তারিতভাবে বর্ণনা করে দিয়েছি। আপনি চাইলেই উপরুক্ত নিয়মগুলো দেখে নিয়ে খুব সহজেই জন্ম নিবন্ধন যাচাই কপি পেতে পারেন। উপরে আমি খুব ভালোভাবে জন্ম নিবন্ধন যাচাই কপি বের করার নিয়ম দেখিয়ে দিয়েছি।

সাথে স্ক্রিনশট দিয়ে বুঝিয়ে দিয়েছি কোথা থেকে কোথায় যাবেন এবং কিভাবে প্রক্রিয়াগুলো সমাধান করবেন আর সকল প্রক্রিয়া ঠিকঠাক করলেই জন্ম নিবন্ধন যাচাই কপি পেয়ে যাবেন। তাহলে আশা করি জন্ম নিবন্ধন যাচাই কফি নিয়ে আপনারা কোন ধরনের সমস্যা না থাকারই কথা। চাইলে আপনি এখন সহজে জন্ম নিবন্ধন যাচাই কপি পেয়ে যাবেন।

নতুন জন্ম নিবন্ধন জন্য আবেদন

নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন বা অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন সবগুলো একই ব্যাপার। এ সমস্ত প্রক্রিয়া আমি উপরে দেখিয়ে দিয়েছি। তারপরও আরো একবার আপনাদের সুবিধার্থে এখানে আমি দ্বিতীয়বারের মতো ভালোভাবে জন্ম নিবন্ধন জন্য আবেদন কিভাবে করবেন সে বিষয়টি দেখিয়ে দিচ্ছি।

জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে হলে অবশ্যই আপনাকে তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে। আপনি যদি অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে চান তাহলে এখনই নিচে থাকা নীল রঙের অপশনটিতে চাপ দিন। তাহলে আপনি সরাসরি জন্ম নিবন্ধন আবেদন পেজটিতে চলে যাবেন।

জন্ম নিবন্ধন আবেদন যাচাই লিং চাপ দিন

নতুন জন্ম নিবন্ধন জন্য আবেদন প্রথম ধাপ আপনি নিচের এই অপশনটি পাবেন

জন্ম নিবন্ধন আবেদন
জন্ম নিবন্ধন আবেদন

এখানে আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে আবেদন করেন। তাহলে জন্মস্থান অপশনটিতে ঠিক রেখে পরবর্তী অপশনে চাপ দিবেন। আর যদি আপনি বাংলাদেশ দূতাবাসে জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে চান তবে নিচের অপশনটিতে টিক দিবেন।

এরপর নতুন জন্ম নিবন্ধন জন্য আবেদন দ্বিতীয় ধাপে নিচের অপশনটি আসবে।

জন্ম নিবন্ধন আবেদন
জন্ম নিবন্ধন আবেদন

উপরের এই অপশনটি আসার পরে আপনাকে এখান থেকে প্রতিটি ঘর যথাযথ সঠিকভাবে পূরণ করতে হবে। ফাঁকা ঘরের বাম পাশে দেখুন লাল রঙের স্টার চিহ্ন দেওয়া রয়েছে। আর এই স্টার চিহ্ন দেওয়া প্রতিটি ঘর অবশ্যই পূরণ করতে হবে আপনি যদি একটা ঘরও বাদ দেন তাহলে পরবর্তী ধাপে যেতে পারবেন না। আর এখানে অবশ্যই আপনি আপনার সঠিক তথ্য দিয়ে ঘর গুলো পূরণ করবেন। সঠিকভাবে পূরণ হয়ে গেলে পরবর্তী অপশনটিতে ক্লিক করবেন।

এরপর নতুন জন্ম নিবন্ধন জন্য আবেদন তৃতীয় ধাপে নিচের অপশনটি আসবে।

জন্ম নিবন্ধন আবেদন
জন্ম নিবন্ধন আবেদন

তৃতীয় ধাপের এই অপশনে পিতা-মাতার নাম সঠিকভাবে পূরণ করে এবং পিতামাতার জাতীয়তা সঠিকভাবে দিয়ে পরবর্তী ধাপে যেতে হবে। পরবর্তী একেবারে সহজ তাই আর দিলাম না। পরবর্তী ধাপের অপশনে ফোন নম্বর দিয়ে পূরণ করে সাবমিট করে দিলেই আপনার জন্ম নিবন্ধন আবেদন হয়ে যাবে। জন্ম নিবন্ধন আবেদন হয়ে গেলে আপনাকে সেখান থেকে একটি আবেদন কোড দিবে এসএমএসে।

আরো পড়ুনঃ দলিল কত প্রকার হয়ে থাকে কোন দলিলের কাজ কি জানুন

উক্ত কোডটি আপনার আবেদনপত্রের উপরেও দেখা যাবে। যদি আপনি আবেদন পত্রটি ডাউনলোড করে অথবা পিডিএফ করে প্রিন্ট দিয়ে নেন। আশা করি নতুন জন্ম নিবন্ধন জন্য আবেদন নিয়ে আপনার আর কোন ধরনের সমস্যা থাকবে না যদি আপনি আমার এই নিয়মে নতুন জন্ম নিবন্ধন জন্য আবেদন করতে পারেন।

জন্ম নিবন্ধন নিয়ে শেষ কথা

জন্ম নিবন্ধন আমাদের খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি নথি। আমাদের প্রতিটি পথে পথে বিভিন্ন কাজের জন্য জন্ম নিবন্ধনের বিশেষ প্রয়োজন হয়ে থাকে। কথায় আছে যে শিক্ষায় জাতির মেরুদন্ড তাই আপনি চান যে আপনার ছেলে মেয়ে অবশ্যই শিক্ষিত হোক। শিক্ষার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ জন্ম নিবন্ধন। আপনার যদি ছোট একটি শিশু বাচ্চা হয়ে থাকে আর সেই বাচ্চাকে যদি আপনি স্কুলে ভর্তি করাতে যান। তাহলে সেখানে অবশ্যই আপনার জন্ম নিবন্ধন থাকা আবশ্যক।

জন্ম নিবন্ধন ছাড়া আপনি আপনার বাচ্চাকে কখনো স্কুলে ভর্তি বাড়াতে পারবেন না। আমরা নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন শুরু আবেদন করবেন যেভাবে A-Z সমাধান আর্টিকেলটিতে জন্ম নিবন্ধন নিয়ে সকল খুঁটিনাটি তথ্য বিস্তারিতভাবে আলোচনা করেছি। আপনি যদি এই আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে সম্পন্ন পড়ে থাকেন তাহলে জন্ম নিবন্ধন নিয়ে আর কোন ধরনের সমস্যায় পড়তে হবে না আপনাকে।

আমার এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনি যদি উপকৃত হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই এই লিখাটি আপনার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করতে ভুলবেন না। তারাও এটি দেখে জন্ম নিবন্ধনের সকল খুঁটিনাটি বিষয় সম্পর্কে জানতে পারবে। তাহলে আজ নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন শুরু আবেদন করবেন যেভাবে A-Z সমাধান পর্বটি এখানেই শেষ করলাম।

Assalamu Alaikum! Hello world, I am Md. Hafijul Islam (mhihafijul). I am a Bangladeshi SEO expert. And I have been writing high quality Bengali content for a long time. I can write very nice SEO friendly articles. Along with that we do onpage seo, offpage seo and technical seo in proper guidelines. For which every article I write ranks on Google's fast page.

Sharing Is Caring:

Leave a Comment

error: Content is protected !!