বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিসটেন্ট কেন এই চাকুরী করতে চাই সবাই

প্রিয় পাঠক বিন্দু আজকে আমি বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিসটেন্ট সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব এই আর্টিকেলটির মাধ্যমে। অনেকেই এই পোস্টে আবেদন করেন এবং এই পোস্টে চাকরি করতে চান কিন্তু জানেন না যে এর কাজ কি এবং কিভাবে এখানে চাকরি পাওয়া যায়। সবকিছু জানতে হলে অবশ্যই লেখাটি আপনাকে মনোযোগ দিয়ে পড়তে হবে সম্পূর্ণ।

আপনি হয়তো জানেন কিংবা জানেন না যে গ্রাউন্ড সার্ভিসে যারা কাজ করে থাকেন তাদেরকে অনেক ধরনের কাজই করতে হয়। কি কি ধরনের কাজ করতে হয় সেই সম্পর্কে আজকে আমি বিস্তারিত আলোচনা করব। তাহলে চলুন এখন জেনে নেওয়া যাক বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিসটেন্ট ২০২৪ বিষয়টি আসলে কি।

পোস্ট সূচিপত্রঃ বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিসটেন্ট কেন এই চাকুরী করতে চাই সবাই

  • ভূমিকা
  • বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিসটেন্ট
  • গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট এর কাজ কি
  • গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট বেতন কত
  • গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট সুযোগ সুবিধা
  • গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট পদোন্নতি
  • লেখকের শেষ কথা

ভূমিকা

ছোটবেলা থেকে আমাদের সকলের ইচ্ছা থাকা আকাশে উড়ার। আমরা ছোটবেলা থেকে আমাদের মাথার উপর দিয়ে কোন বিমান গেলে তাকিয়ে থাকতাম। আর সে কারণেই অনেকেই চাই বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্সে যেকোনো চাকরি করতে। যেহেতু আমরা অধিকাংশ মানুষই বিমানের পাইলট হতে পারে না তাই বিমান বাংলাদেশী এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট অনেকেই আবেদন করতে পারেন। তবে এ বিষয়েও অনেকে অবগত নন তার কারণে আবেদন করতে পারেন না।

অথবা জানেন না যে এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস কি এবং এই পদটির কাজই বা কি। আমি আজকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট সম্পর্কেই সকল খুঁটিনাটি তথ্যগুলো স্টেপ বাই স্টেপ তুলে ধরব। আপনি যদি আমার এই আর্টিকেলটি সম্পন্ন মনোযোগ দিয়ে পড়েন তাহলে গ্রাউন্ড সার্ভিস সম্পর্কে একেবারে এ টু জেড ধারণা পেয়ে যাবেন। তাহলে আর দেরি না করে চলুন শুরু করা যাক।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট কি?

আমাদের মাঝে বেশিরভাগ মানুষই  বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স বলতে বুঝি বিমানের ভিতরের কাজগুলো। যেগুলো উড়ন্ত অবস্থায় করা হয়। কিন্তু গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট হলো গ্রাউন্ডে অর্থাৎ মাটিতে বা নিচের কাজ। সাধারণভাবে বলা যায়- যাত্রীদেরকে বিমানে উঠানোর আগ পর্যন্ত যে সকল কার্যক্রম রয়েছে সেই কার্যক্রমগুলো যাদের দ্বারা করানো হয় তাদেরকে সাধারন ভাবে গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট বলে অথবা  বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট বলে।

যেমন ধরুন, আমাদের মাঝে অনেকেই আছে যারা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের নিয়ম কানুন সম্পর্কে অবগত না। এ ক্ষেত্রে গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট তাদেরকে এই নিয়মগুলো জানিয়ে দেন। আবার ধরুন অনেকে আছে যারা কিভাবে বিমানবন্দরের ভিতরে ঢুকতে হয়, কিভাবে পাসপোর্ট দেখাতে হয়, বিমানবন্দরের ভিতরে কোথায় থেকে কোথায় গেলে বিমানে উঠতে পারবে, বিমানবন্দরের কোথায় কি আছে,

বিমানে ওঠার আগে কি কি সতর্কতা মেনে চলতে হবে ইত্যাদি বিষয়গুলো সম্পর্কে জানেনা। এক্ষেত্রেও কিন্তু  বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট তাদেরকে এগুলো জানিয়ে দেয়। তাই সাধারণভাবে যদি বলি, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট হলো গ্রাউন্ডে অর্থাৎ নিচে যারা যাত্রীদেরকে সাহায্য করার উদ্দেশ্যে কাজ করে তাদেরকে গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট বলে। আশা করি বুঝতে পেরেছেন। এখন বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট এর কাজ কি জানতে পড়তে থাকুন।

গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট এর কাজ কি?

আমাদের মাঝে অনেকেই আছে যারা প্রশ্ন করেন গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট এর কাজ কি? গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট এর কাজ গুলো বলার আগে আপনাদেরকে একটা কথা জানিয়ে রাখি যে- গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট এর কাজ হলো নিচে অর্থাৎ বিমানবন্দরের ভিতরে, বিমান আকাশের অবস্থায় নয়। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এর ভিতরে অনেক গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট রয়েছে যাদের কাজ হলো।

যখন কোন বিমান বা উড়োজাহাজ তার ফ্লাইট শেষ করে বিমানবন্দরের অবতরণ করে তখন এই গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্টদেরকে সেই বিমানগুলোকে ধুয়ে মুছে পরিষ্কার করতে হয় এবং বিমানের বিভিন্ন যন্ত্রাংশ বা ইঞ্জিন চেক করতে হয়। অর্থাৎ এক কথায় বলা যায় যে বিমানের রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব পালন করা। তবে গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্টদের যে সকল মূল কাজ থাকে তা নিজে তালিকা আকারে দেওয়া হলো।

  1. গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট এর প্রথম কাজ হলো বিমানের টিকিট বিক্রি করা।
  2. বিমানের টিকিট সংগ্রহ করা।
  3. বিমান যাত্রীদের সকল ধরনের সমস্যার দেখভাল করা।
  4. সকল যাত্রীদের বিভিন্ন ধরনের সেবা প্রদান করা।
  5. যাত্রীদের লাগেজ চেক করা।
  6. নিয়মিতভাবে ওয়্যারিং ফিক্সচারস, এপ্লায়েন্সেস এর মতো বৈদ্যুতিক সিস্টেমগুলি পরিদর্শন করা।
  7. বিমান যাত্রীদের মধ্যে যারা শারীরিক প্রতিবন্ধী বা অক্ষম রয়েছে তাদেরকে সাহায্য করা ইত্যাদি ।

এছাড়াও  বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স আপনাকে যে কাজের জন্য এই পদে নিযুক্ত করবে সেই কাজগুলো করা। আর এই কাজগুলো অবশ্যই বিমানবন্দরের ভিতরে করতে হয়। যার কারণে এই কাজের পদকে গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট নামকরণ করা হয়েছে। আশা করি আপনারা গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট এর কাজ সম্পর্কে জানতে পেরেছে। এখন গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্টদের বেতন কত এ সম্পর্কে জানতে পড়তে থাকুন।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিসটেন্ট

আমরা জানি যে বিমান আকাশে উড়ে। আর বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গাউন সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট এর কাজ হল গ্রাউন্ডে অর্থাৎ মাটিতে বা নিচে। বিমানে ওঠা নামার জন্য যে সকল কার্যক্রম রয়েছে সে সকল কাজগুলোই করতে হয় এই গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্টকে। যেমন বিমানের বিভিন্ন ব্যাগ চেকিং করে উঠানো এবং নামানো এ ধরনের কাজ করেন গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট।

আরো পড়ুনঃ ফেসবুক বোনাস প্রোগ্রামের যোগ্যতা কি কি জেনে নিন

এছাড়াও বিমানবন্দর থেকে বিমান অবধি যাত্রীদেরকে নিয়ে যাওয়ার জন্য এক ধরনের বাস কিংবা কার চালাতে হয় এই গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট দের কে। আমরা জানি যে বিমানে ওঠার জন্য সকল মানুষের কৌতূহল থাকে কিন্তু টাকার অভাবে অনেকেই বিমানে উঠতে পারেন না। ফলে আমরা অনেকেই জানিনা বিমানের নিয়ম কানুন গুলো কি রয়েছে বা বিমানে উঠলে কোন কোন নিয়ম কানুন গুলো মাথায় রাখতে হয়।

আর এ সকল বিষয়গুলো জানার জন্যই যাত্রীগণ বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্টেদের সহযোগিতা নিয়ে থাকেন। তারা গ্রাউন্ডে থেকেই অর্থাৎ নিচে থেকেই যাত্রীদেরকে বিমানে ওঠার বিষয়ে বেশ কিছু নিয়মকানুন শিখিয়ে দেন এবং বিমানে কোন কোন জিনিসের উপর সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে সে বিষয়ে জানিয়ে দেন। তাহলে আশা করি এখন আপনি বুঝতে পেরেছেন বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট এদের কাজ কি এবং তারা কি করে।

গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট এর কাজ কি

গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট এর কাজ কি অনেকেই বলে থাকেন। আমি শুরুতেই বলে দিয়েছি গাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট দের কাজ হল বিমানের নিচের কাজ অর্থাৎ বিমান তো আকাশে উড়ে। কিন্তু বিমানে উঠা পর্যন্ত গ্রাউন্ডে অর্থাৎ মাটিতে বা নিচে যে ধরনের কাজগুলো থাকে সে ধরনের কাজগুলোই করে থাকেন এ গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট। আমরা জানি যে বিমান তো আকাশে উড়ে কিন্তু।

আমরা তো জানি যে বিমান আকাশে উড়ে কিন্তু বিমান আকাশ থেকে নামার পরে মাটিতে পড়ার পর বিমানকে ধুয়ে মুছে পরিষ্কার করতে হয় এবং এর বিভিন্ন যন্ত্রাংশ বা ইঞ্জিন চেক করে দেখতে হয় সবকিছু ঠিক আছে কিনা। আর এই ধরনের সকল কার্যক্রম বা কাজ করে থাকেন গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট। তারা একটি বিমানের সঠিক রক্ষণাবেক্ষণ করে থাকেন এবং একটি বিমানকে যথাসাধ্য ঝকঝকে চকচকে এবং পরিষ্কার করে রাখেন।

এছাড়াও বিমানবন্দরের কাউন্টার হতে বিমান পর্যন্ত যাত্রীদেরকে পৌঁছে দেন সঠিকভাবে গ্রাউন্ড সার্ভিস। তাই তারা অত্যন্ত পরিশ্রমী এবং ধৈর্যশীল হয়ে থাকেন। একটি বিমানকে দুর্ঘটনা প্রবল থেকে বাঁচানো জন্য যে সকল কার্যক্রম একটি বিমান ওড়ার পূর্বে না হয়ে থাকে সে সকল কার্যক্রম গুলোই বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট করে থাকে। তাহলে আশা করি এখন আপনি বিষয়টি সম্পূর্ণ রূপে বুঝতে পেরেছেন।

গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট সুযোগ সুবিধা কি?

সরকারি চাকরি মানেই সেখানে সুযোগ-সুবিধার কোন কমতি নেই। আপনি যে কোন সরকারি চাকরি করেন না কেন সেখানে আপনি পাবেন অনেক অনেক সুযোগ সুবিধা। তেমনি বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট এর রয়েছে অনেক ধরনের সুযোগ সুবিধা। যে কারণে এই পদের চাকরিটি সকলের কাছে জনপ্রিয়। চলুন তাহলে জেনে নেই গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট এর সুযোগ সুবিধা গুলো কি কি।

  1. গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট এর সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো এর বেতন। যা কাজের বয়স হওয়ার সাথে সাথে বৃদ্ধি পায়।
  2. আপনাকে ৮ ঘণ্টার বেশি সময় ডিউটি করতে হবে না।
  3. এখানে চাকরি করলে আপনার সম্মান বেড়ে যাবে।
  4. এখানে আপনি প্রতিদিন ডিউটি শিডিউল অনুযায়ী খাবার প্রদান করা হয়।
  5. এই চাকরিতে উৎসব ভাতার পাশাপাশি থাকছে বাড়ি ভাড়া, চিকিৎসা ভাতা, ইনক্রিমেন্ট ইত্যাদি সব ভাতা।
  6. রয়েছে ফ্রিতে বিভিন্ন জায়গায় বিমানে যাতায়াত করার সুযোগ।
  7. গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট এ রয়েছে পদোন্নতি সুযোগ ইত্যাদি।
  8. প্রতিবছরের উৎসব ভাতা দেয়া হয় দুটি।
  9. প্রভিডেন্ট ফান্ড ও অন্যান্য কোম্পানির নিয়ম অনুযায়ী প্রদান করে থাকে।

এছাড়াও  বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট রয়েছে আরও বিভিন্ন ধরনের সুযোগ সুবিধা। যেগুলো আপনারা যদি এখানে চাকরি করেন তাহলে বুঝতে পারবেন।

গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট বেতন কত

অনেক মানুষই জানতে চেয়ে থাকেন কিংবা গুরু বলে সার্চ দিয়ে থাকেন গ্রাউন্ড সার্ভিস বেতন কত লিখে। তাহলে চলুন এখন আমরা জেনে নেব গ্রাউন্ড সার্ভিস বেতন কত হয়ে থাকে এবং তারা কত টাকা করে বেতন পায় এই গ্রাউন্ড সার্ভিসে পরিশ্রম দেওয়ার পরে। ডাউন সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট বেতন হলো ১২ হাজার ৫২০টাকা থেকে ত্রিশ ৩০ হাজার ২৫০ টাকা হয়ে থাকে। বেতনের দিক দিয়ে এই পথটির শুরুর দিকে কম টাকা বেতন হলেও ধীরে ধীরে এর বেতন বৃদ্ধি পেতে থাকে।

যার ফলে এই গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট পদে চাকরি নেওয়ার জন্য অনেকেই আবেদন করে থাকেন। তবে শুধুমাত্র এই পদের যোগ্য এবং স্মার্ট ব্যক্তিদের কেই নেওয়া হয়। তাই বলা যায় বেতনের দিক থেকে গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট পরটি খুবই জনপ্রিয় এবং ভালো মানের একটি পদ। তবে এই পদে আবেদন করার জন্য অবশ্যই শিক্ষাগত যোগ্যতার স্নাতক থাকতে হবে।

শিক্ষাগত জীবনে এসএসসি এইচএসসি এবং স্নাতক বিভাগের কোনটাতেই তৃতীয় বিভাগ থাকা যাবে না তাহলে আপনি এই পদে আবেদন করতে পারবেন না কখনো। এবং আপনার বয়স অবশ্যই ৩০ থেকে ৩২ বছরের মধ্যে হতে হবে। আর অবশ্যই বলে রাখি আপনাদের সুবিধার্থে গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট পথটি হচ্ছে চার স্কেলের অর্থাৎ এটি একটি ভালো মানের চাকরি।

গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট সুযোগ সুবিধা

অনেকে জানতে চান যে গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট সুযোগ সুবিধা কিরকম রয়েছে। তাহলে চলুন আমরা জেনে নেব এখন সেই বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য গুলো। গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট সুযোগ সুবিধা অসংখ্য রয়েছে তার মধ্যে বড় সুযোগ সুবিধা হল সপ্তাহে দুই নাইট ডিউটি হয়ে থাকে। এর বেতন মানব খুব ভালো শেষের দিকে গিয়ে প্রায় বাড়ি ভাড়া চিকিৎসা ভাতা সবকিছু মিলিয়ে ৪০ থেকে ৫০ হাজার এর মত বেতন হয়ে থাকে।

আরো পড়ুনঃ মোবাইল ট্রেডিং করা শিখুন খুব সহজে

গ্রাউন্ড সার্ভিস সুবিধার মধ্যে রয়েছে বাড়ি, ভাড়া চিকিৎসা ভাতা, ইনক্রিমেন্ট, উৎসব ভাতা ইত্যাদি। তাই এই চাকরি করার জন্য সকলেই উৎসুক হয়ে থাকেন। তবে যোগ্যতা সম্পন্ন না হওয়ার কারণে অধিকাংশ ব্যক্তি এই পদে আবেদন করতে পারেন না। তবে যারা একবার আবেদন করতে পারেন তারা গ্রাউন্ড সার্ভিস সুবিধা গুলো নির্দ্বিধায় ভোগ করতে পারেন। অসংখ্য সুযোগ সুবিধা রয়েছে যার মধ্যে বেশ কিছু সুযোগ সুবিধা গুলোই আমি বলে দিলাম আশা করি আপনি গ্রাউন্ড সার্ভিস এখন আপনি বুঝতে পেরেছেন।

গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট পদোন্নতি

অনেকেই জানতে চেয়ে থাকেন কিংবা গুগলে সার্চ দিয়ে থাকেন গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট পদোন্নতি লিখে। আসলে তারা এই পদটির পদোন্নতি সম্পর্কে জানতে চান তাই এখন আমি আপনাকে গ্রাউন্ড সার্ভিস পদোন্নতি সম্পর্কে বিস্তারিত বলে দিব। গ্রাউন্ড সার্ভিস পদোন্নতি একটু দেরিতেই হয়। এই পথটির পদোন্নতি পাওয়ার জন্য দুই থেকে তিন বছর টানা পরিশ্রম করে যেতে হয়। এই দুই তিন বছর বিভিন্ন ধরনের রিসিপশনের কাজ যাত্রীদেরকে বোঝানো এবং যাত্রীদেরকে বিমানে নিয়ে যাওয়া।

টিকিট কাউন্টার থেকে আবার বিমান থেকে নামিয়ে টিকিট কাউন্টারে অর্থাৎ বিমানবন্দরে নিয়ে আসা এ ধরনের কাজগুলো করতে হয়। এছাড়াও ফিজিকালি বিমানের যন্ত্রাংশগুলো দেখাশোনা করতে হয় বিমানকে ঝকঝকে এবং পরিষ্কার করে রাখতে হয়। এ সকল পরিশ্রম করার পরেই এ পথটিতে পদোন্নতি পাওয়া যায়। এ পথটি থেকে পদোন্নতি পাওয়ার পরে আপনি একজন বড় ধরনের কর্মকর্তা হতে পারবেন।

আর একজন কর্মকর্তা হয়ে গেলে আপনার কাজের সুবিধা আরো দ্বিগুণ বেড়ে যাবে। তাহলে আশা করি নিশ্চয়ই এখন গ্রাউন্ড সার্ভিস পদোন্নতি বিষয়টিকে বুঝতে পেরেছেন এবং কখন কিভাবে এই পদোন্নতি পাবেন সে সম্পর্কে বুঝতে পেরেছেন। এছাড়াও আপনার যদি এই পথটি নিয়ে আরো কোন ধরনের প্রশ্ন থেকে থাকে তাহলে অবশ্যই নিচে কমেন্ট করে জানাবেন আমি উত্তর দেব।

লেখকের শেষ কথা

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট নিয়ে আজকের আমার এই আর্টিকেলটি সাজানো হয়েছিল সম্পূর্ণ। এখানে আমি বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস সম্পর্কে সঠিক তথ্যগুলো স্টেপ বাই স্টেপ তুলে ধরেছিঅ বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স সহ বাংলাদেশের সকল এয়ারলাইন্স এ গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিস্ট্যান্ট পদটির কার্যক্রম একই রকম হয়ে থাকে। এবং নিয়ম অনুযায়ী দুই থেকে তিন বছর পরিশ্রম করার পরেই এই পথ থেকে পদোন্নতি পাওয়া যায়।

আরো পড়ুনঃ ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ কিভাবে করতে হয় জেনে নিন

আপনি যদি আমার এই আর্টিকেলটি সম্পন্ন করে থাকেন তাহলে এই বিষয়ে আরো বিস্তারিত জেনে যাবেন। এখনো যদি আপনি আর্টিকেলটি সম্পন্ন না পড়ে থাকেন তাহলে বলবো এক্ষুনি আপনি উপর থেকে সম্পূর্ণ আটিকেলটি ভালোভাবে মনোযোগ দিয়ে পড়ে নিন। তাহলে আপনার বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস বিষয়টি নিয়ে আর কোন ধরনের প্রশ্ন থাকবে না। ধন্যবাদ প্রিয় পাঠক বিন্দু ভালো থাকবেন।

Assalamu Alaikum! Hello world, I am Md. Hafijul Islam (mhihafijul). I am a Bangladeshi SEO expert. And I have been writing high quality Bengali content for a long time. I can write very nice SEO friendly articles. Along with that we do onpage seo, offpage seo and technical seo in proper guidelines. For which every article I write ranks on Google's fast page.

Sharing Is Caring:

1 thought on “বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গ্রাউন্ড সার্ভিস অ্যাসিসটেন্ট কেন এই চাকুরী করতে চাই সবাই”

  1. It’s appropriate time to make some plans for the future and it is time to be happy.
    I’ve read this post and if I could I desire to suggest you some interesting things or tips.
    Maybe you can write next articles referring to this
    article. I want to read even more things about it!

    Reply

Leave a Comment

error: Content is protected !!