বাংলাদেশের বিভাগ ও জেলা নিয়ে A to Z গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলো জেনে নিন

5/5 - (1 vote)

বর্তমান বাংলাদেশের ৮টি বিভাগ ও ৬৪টি জেলা রয়েছে। সর্বশেষ আপডেট করা হয়েছে ময়মনসিংহ বিভাগকে এবং সর্বশেষ ফেনী জেলাকে ৭ই নভেম্বর ১৯৮৪ সালে প্রতিষ্ঠিত করা হয়। উপরোক্ত ৬৪টি জেলাকে আবার ৪৯৫ টি উপজেলা বিভক্ত করা হয়েছে।

বাংলাদেশের বিভাগ ও জেলা নিয়ে আপনার যত প্রশ্ন রয়েছে সব কিছুর উত্তর পাবেন এই আর্টিকেলটিতে। আমরা অনেকেই বাংলাদেশের ইতিহাস ও ঐতিহ্য সম্পর্কে জানতে চাই বিশেষ করে বাংলাদেশের ৮টি বিভাগ এবং ৬৪ জেলার ইতিহাস ও ঐতিহ্য সম্পর্কে জানার আগ্রহ নিয়ে অনেকে গুগলে সার্চ করে থাকি।

আজকে আপনি আমার এই লেখাটি সম্পন্ন করলে ৬৪জেলার ইতিহাস ঐতিহ্য সেই সাথে কিভাবে আপনি খুব সহজে মনে রাখতে পারবেন প্রত্যেকটি বিভাগ এবং জেলার নাম তার একটি শর্টকাট টেকনিকও বলে দিব। তাই অবশ্যই লেখাটি একবার মনোযোগ দিয়ে পড়ে নিন।

Table of Contents

বাংলাদেশের বিভাগ ও জেলা কয়টি

বাংলাদেশের বিভাগ ও জেলা কয়টি? বর্তমানে বাংলাদেশের ৮টি বিভাগ ও ৬৪টি জেলা রয়েছে। আর প্রতিটি বিভাগ ও প্রতিটি জেলা রয়েছে আলাদা আলাদা সংস্কৃতি ঐতিহ্য ও সামাজিক ব্যবস্থা। আর এসব কিছুই আলোচনা করব আজকের এই লেখাটির মাধ্যমে তাই ধৈর্য ধরে একটু সঙ্গে থাকুন।

বাংলাদেশের বিভাগ মানচিত্র

বাংলাদেশের বিভাগ মানচিত্র অনেকে গুগলেএ খুঁজে থাকেন। তাহলে চলুন এখন আমি আপনাকে বাংলাদেশের বর্তমান আপডেট বিভাগ মানচিত্রটি স্পষ্টভাবে দেখিয়ে দেই। তাহলে আপনার আর পরবর্তীতে বাংলাদেশের মানচিত্র নিয়ে কোন ধরনের দ্বিমত থাকবে না।

চাইলে আপনি এই বাংলাদেশের বিভাগ মানচিত্রটি আপনার মোবাইল ফোনে সেভ করে রাখতে পারেন ভবিষ্যতে আপনার কাজে লাগবে। বাংলাদেশের বিভাগ মানচিত্র নিচে দেওয়া হলোঃ

বাংলাদেশের বিভাগ কয়টি ২০২৩

বাংলাদেশের বিভাগ কয়টি ২০২৩ লিখে অনেকেই সঠিক তথ্যটি জানতে চান। বাংলাদেশের বর্তমান বিভাগ ৮টি সর্বশেষ ময়মনসিংহ বিভাগকে বিভাগ হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে। ময়মনসিং বিভাগ হওয়ার আগে বাংলাদেশের মোট বিভাগ ছিল ৭টি। তাহলে আশা করি এখন আপনি বাংলাদেশের বিভাগ কয়টি ২০২৩ সম্পর্কে জানতে পেরেছেন।

বর্তমানে বাংলাদেশের বিভাগ কয়টি

বর্তমানে বাংলাদেশের বিভাগ কয়টি? সর্বশেষ ময়মনসিংহ বিভাগ করার পর থেকে বাংলাদেশের মোট বিভাগ ৮টি। তারপরও এ লেখাটি লিখে অনেকে সঠিক তথ্যটি জানতে চান। আশাকরি এখন আপনি সঠিক তথ্যটি জানতে পেরেছেন।

যাই হোক বাংলাদেশের বিভাগ ও জেলার ঐতিহ্য ইতিহাস নিয়ে কিন্তু সবচেয়ে ইনফরমেটিভ তথ্য দেওয়া হবে এই লেখাটির মাধ্যমে তাই অবশ্যই লেখাগুলো মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।

বাংলাদেশের বিভাগ কয়টি ও কি কি

বাংলাদেশের বিভাগ কয়টি ও কি কি? বাংলাদেশের বিভাগ হলো ৮টি, যথা; ঢাকা বিভাগ, চট্টগ্রাম বিভাগ, রাজশাহী বিভাগ, খুলনা বিভাগ, সিলেট বিভাগ, বরিশাল বিভাগ, রংপুর বিভাগ, ময়মনসিংহ বিভাগ।

আরো পড়ুনঃ বাংলা ও ইংরেজি মাস অনুযায়ী রাশি – কোন রাশির মেয়েরা সবচেয়ে ভালো

প্রিয় পাঠক ভিন্ন আশা করি আপনি আপনার সঠিক উত্তরটি এখন পেয়ে গেছেন। তারপরও আপনার সুবিধার্থে আরো একবার জানিয়ে দেই বাংলাদেশের বিভাগ মোট ৮টি। তবে পূর্বে ছিল ৭টি বিভাগ।বাংলাদেশের বিভাগগুলোর নাম হলঃ

  1. ঢাকা বিভাগ
  2. রাজশাহী বিভাগ
  3. চট্টগ্রাম বিভাগ
  4. সিলেট বিভাগ
  5. খুলনা বিভাগ
  6. বরিশাল বিভাগ
  7. রংপুর বিভাগ
  8. ময়মনসিংহ বিভাগ

বাংলাদেশের বিভাগ কয়টি

বাংলাদেশের বিভাগ কয়টি? মোট ৮টি বিভাগ যা আমরা ইতিমধ্যেই সঠিক তথ্যটি জেনে গেছি। এখন আমরা এই ৮টি বিভাগের যে ৬৪ টি জেলা রয়েছে তার প্রত্যেকটির নাম সহ এদের ঐতিহ্য ইতিহাস সম্পর্কেও জানবো।

বাংলাদেশের বিভাগ ও জেলার নাম

বাংলাদেশের বিভাগ ও জেলার নাম  ও ইতিহাস ঐতিহ্য সম্পর্কে এখন আমরা জানবো। চলে এসেছি এখন আমরা মূল আলোচনার মূল পর্বে। এতক্ষণ ধরে আমার এই লেখাটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। তাহলে চলুন এখন আমরা বাংলাদেশের ৮টি বিভাগের ৬৪ টি জেলার পরিচিতি আগে জেনে নেই অর্থাৎ ৬৪টি জেলার নাম জেনে নিব।

বাংলাদেশের ৬৪ জেলার নাম মনে রাখার সহজ উপায়

বাংলাদেশের ৬৪ জেলার নাম মনে রাখার সহজ উপায় টেকনিক। বিশেষ করে শিশু বয়সে বাচ্চাদের বাংলাদেশের ৬৪ জেলার নাম মনে রাখতে একটু কঠিন হয়ে যায়। আর তার জন্যই আপনি যদি এই লেখাটি সম্পন্ন  পড়েন আর আপনার বাড়িতে যদি ছোট বাচ্চা থেকে থাকে তাহলে এই লেখাটি তার জন্য আজকে খুবই উপযুক্ত হবে। আপনি আজকের আমার এই লেখাটির মাধ্যমে বাংলাদেশের ৬৪টি জেলার নাম খুব সহজে মনে রাখতে পারবেন। তাহলে চলুন এখন জেনে নিন সম্পূর্ণ বিষয়টি।

পুরযুক্ত ১২টি জেলা:

চাঁদপুর, লক্ষ্মীপুর, মেহেরপুর, পিরোজপুর, গাজীপুর, শরিয়তপুর, মাদারীপুর, ফরিদপুর, শেরপুর, জামালপুর, দিনাজপুর, রংপুর।

খালীযুক্ত ২টি জেলা:

নোয়াখালী, পটুয়াখালী।

আইলযুক্ত ২টি জেলা:

নড়াইল, টাঙ্গাইল।

গঞ্জযুক্ত ৯টি জেলা:

সিরাজগঞ্জ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, হবিগঞ্জ, সুনামগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, গোপালগঞ্জ।

শেষে আ-কারযুক্ত ১৫টি জেলা:

কুমিল্লা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, পাবনা, বগুড়া, নওগাঁ, সাতক্ষীরা, চুয়াডাঙ্গা, কুষ্টিয়া, মাগুরা, খুলনা, ভোলা, বরগুনা, ঢাকা, গাইবান্ধা, নেত্রকোণা।

শেষে কারবিহীন ৯টি জেলা: (পুর, গঞ্জ, হাট, বাজার, গ্রাম, আইল ছাড়া)

বান্দরবান, নাটোর, যশোর, ঝিনাইদহ, বরিশাল, সিলেট, পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, ময়মনসিংহ।

শেষে ই-কারযুক্ত ৩টি জেলা:

রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি, ঝালকাঠি।

শেষে ঈ-কারযুক্ত ৫টি জেলা: (খালী ছাড়া)

ফেনী, রাজশাহী, নরসিংদী, রাজবাড়ী, নীলফামারী।

হাটযুক্ত ৩টি জেলা:

জয়পুরহাট, বাগেরহাট, লালমনিরহাট।

বাজারযুক্ত ২টি জেলা:

কক্সবাজার, মৌলভীবাজার।

গ্রামযুক্ত ২টি জেলা:

চট্টগ্রাম, কুড়িগ্রাম।

বাংলাদেশের বিভাগ ও জেলা বাংলাদেশের ৮ বিভাগের ৬৪ জেলার নাম ও পরিচিতি:

প্রিয় পাঠক বন্ধু বাংলাদেশের বিভাগ ও জেলা

জানার আগে। এখন শুরুতেই আপনি আগে বাংলাদেশের মোট ৮টি বিভাগের নাম  জেনে নিন আর তা হলোঃ

  1. ঢাকা বিভাগ
  2. রাজশাহী বিভাগ
  3. চট্টগ্রাম বিভাগ
  4. সিলেট বিভাগ
  5. খুলনা বিভাগ
  6. বরিশাল বিভাগ
  7. রংপুর বিভাগ
  8. ময়মনসিংহ বিভাগ

তাহলে এখন আমরা বাংলাদেশের ৮টি বিভাগের নাম সঠিক ভাবে জানতে পেরেছি। এখন এই ৮টি বিভাগের প্রতিটি বিভাগে কয়টি করে জেলা এবং কোন কোন জেলা রয়েছে সেগুলোই জানবো। আপনি যদি এখনো না জানেন যে বাংলাদেশের ৮টি বিভাগের মধ্যে কোন বিভাগে কোন কোন জেলা অবস্থিত তাহলে অবশ্যই এই লেখাটি পড়ে নিন একবার।

ঢাকা বিভাগ

  1. নরসিংদী
  2. গাজীপুর
  3. শরীয়তপুর
  4. নারায়ণগঞ্জ
  5. টাঙ্গাইল
  6. কিশোরগঞ্জ
  7. মানিকগঞ্জ
  8. ঢাকা
  9. মুন্সিগঞ্জ
  10. রাজবাড়ী
  11. মাদারীপুর
  12. গোপালগঞ্জ
  13. ফরিদপুর

সূত্র অনুসারে ঢাকা বিভাগ এর জেলাগুলোর নাম

সূত্রঃ কিগো শরিফের মামু রানা গাজীর টাকা তো ঢাকার সিন্দুকে

  1. কি= কিশোরগঞ্জ
  2. গো= গোপালগঞ্জ
  3. শরি= শরিয়াতপুর
  4. ফের= ফরিদপুর
  5. মা= মাদারীপুর
  6. মা= মানিকগঞ্জ
  7. মু= মুন্সিগঞ্জ
  8. রা= রাজবাড়ি
  9. না= নারায়ণগঞ্জ
  10. গাজীর= গাজীপুর
  11. টাকা= টাঙ্গাইল
  12. ঢাকার = ঢাকা
  13. সিন্ধুকে= নরসিংদী

ঢাকা বিভাগ এর জেলাগুলোর বিখ্যাত ঐতিহ্য ও পরিচিতি

  1. ঢাকা: বাংলাদেশের রাজধানী এবং সবচেয়ে জনবহুল জেলা। এখানে ঐতিহাসিক স্থান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, এবং ব্যবসা-বাণিজ্যের কেন্দ্র।
  2. ফরিদপুর: কৃষি ও ঐতিহ্যবাহী শিল্পের জন্য বিখ্যাত।
  3. গাজীপুর: ঢাকার উপশহর এবং শিল্প-কারখানার জন্য পরিচিত।
  4. মানিকগঞ্জ: ঐতিহাসিক স্থান ও মসলিন শাড়ির জন্য বিখ্যাত।
  5. মুন্সিগঞ্জ: ঢাকার উপশহর এবং কৃষি ও মৎস্যজীবনের জন্য পরিচিত।
  6. নারায়ণগঞ্জ: ঢাকার উপশহর এবং শিল্প-কারখানার জন্য পরিচিত।
  7. নরসিংদী: ঐতিহাসিক স্থান ও পাট উৎপাদনের জন্য বিখ্যাত।
  8. টাঙ্গাইল: ঐতিহাসিক স্থান, কৃষি ও লেবু উৎপাদনের জন্য বিখ্যাত।
  9. গোপালগঞ্জ: গোপালগন্জ বঙ্গবন্ধু ও বাদাম এর জন্য পরিচিত।
  10. রাজবাড়ি: রাজবাড়ীর চমচম বেশ সুস্বাদু এবং সারা দেশে এই ক্ষীর চমচমের সুখ্যাতি বিদ্যামান।
  11. মাদারীপুর: খেজুর গুড়, রসগোল্লা।
  12. কিশোরগঞ্জ: বালিশ মিষ্টি।
  13. শরিয়াতপুর: কাশা ও পিতলের তৈজষপত্র তৈরীর জন্য বিখ্যাত ছিল|

রাজশাহী বিভাগ

  1. বগুড়া
  2. চাঁপাইনবাবগঞ্জ
  3. জয়পুরহাট
  4. নাটোর
  5. নওগাঁ
  6. পাবনা
  7. রাজশাহী
  8. সিরাজগঞ্জ

সূত্র অনুসারে রাজশাহী বিভাগ এর জেলাগুলোর নাম

সূত্রঃ চাঁপাবাজ নাসির

  1. চাঁ= চাঁপাই নবাবগঞ্জ
  2. পা= পাবনা
  3. বা= বগুড়া
  4. জ= জয়পুরহাট
  5. না= নাটোর
  6. না= নওগা
  7. সি= সিরাজগঞ্জ
  8. র= রাজশাহী

রাজশাহী বিভাগ এর জেলাগুলোর বিখ্যাত ঐতিহ্য ও পরিচিতি

  1. রাজশাহী: আলু, তিলের খাজা, পান, সিল্ক, তাঁত, বাঁশ ও বেত, স্বর্ণকার, কামার, কুমার, কাঠের কাজ, কাঁসা, সেলাই, বিড়ি উল্লেখযোগ্য। এছাড়াও এ শহরকে শিক্ষার নগরী বলা হয়। রাজশাহী জেলা আম, রাজশাহী সিল্ক শাড়ি, খেজুরের গুড় এবং শংকরের ক্ষীরের চমচম এর জন্য বিখ্যাত।
  2. বগুড়া : দই
  3. চাঁপাইনবাবগঞ্জ:  আম, শিবগঞ্জের চমচম এবং কলাইয়ের রুটি
  4. জয়পুরহাট : উত্তরাঞ্চলের শস্যভান্ডার খ্যাত
  5. নাটোর: কাঁচাগোল্লা এবং বনলতা সেন
  6. নওগাঁ: চাল, সন্দেশ
  7. পাবনা: ঘি এবং লুঙ্গি
  8. সিরাজগঞ্জ: পানিতোয়া, ধানসিড়িঁর দই, ঘি, লুঙ্গি

চট্টগ্রাম বিভাগ

  1. কুমিল্লা
  2. ফেনী
  3. ব্রাহ্মণবাড়িয়া
  4. রাঙ্গামাটি
  5. নোয়াখালী
  6. চাঁদপুর
  7. লক্ষীপুর
  8. চট্টগ্রাম
  9. কক্সবাজার
  10. খাগড়াছড়ি
  11. বান্দরবান

সূত্র অনুসারে চট্টগ্রাম বিভাগ এর জেলাগুলোর নাম

সূত্রঃ কুমিল্লার ব্রাহ্মন লক্ষীকে চাঁদে নেয়, ফেরনী চকবার খায়

  1. কুমিল্লার= কুমিল্লা
  2. ব্রাহ্মন = ব্রাহ্মনবাড়িয়া
  3. লক্ষীকে= লক্ষীপুর ৪) চাঁদে= চাঁদপুর
  4. নেয়= নোয়াখালী
  5. ফেরনী= ফেনী
  6. চ = চট্টগ্রাম
  7. ক= কক্সবাজার
  8. বা= বান্দরবন
  9. র= রাঙ্গামাটি
  10. খায়= খাগড়াছড়ি

চট্টগ্রাম বিভাগ এর জেলাগুলোর বিখ্যাত ঐতিহ্য ও পরিচিতি

  1. চট্টগ্রাম: মেজবান, শুঁটকি এবং সংস্কৃতি ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্য, খাবার, পর্যটন কেন্দ্র, পাহাড় পর্বতের জন্য বিখ্যাত।
  2. কুমিল্লা: রসমালাই, খদ্দর (খাদী)
  3. ফেনী : মহিশের দুধের ঘি এবং খন্ডলের মিষ্টি
  4. ব্রাহ্মণবাড়িয়া: তালের বড়া এবং ছানামুখী
  5. রাঙ্গামাটি: আনারস, কাঁঠাল, কলা, লিচু, লেবু
  6. নোয়াখালী: নারকেল এবং ম্যাড়া পিঠা
  7.  চাঁদপুর: ইলিশ এর রাজধানী চাঁদপুর
  8. লক্ষীপুর: সুপারি
  9. কক্সবাজার: মিষ্টিপান, সমুদ্র সৈকত, ঝরনা
  10. খাগড়াছড়ি: হলুদ, জুম চাষ
  11. বান্দরবান: হিল জুস এবং তামাক

সিলেট বিভাগ

  1. হবিগঞ্জ
  2. মৌলভীবাজার
  3. সিলেট
  4. সুনামগঞ্জ

সূত্র অনুসারে সিলেট বিভাগ এর জেলাগুলোর নাম

সূত্রঃ হবিগঞ্জের মৌলভীর সুনাম ছিল

  1. হবিগঞ্জের= হবিগঞ্জ
  2. মৌলভীর= মৌলভীবাজার
  3. সুনাম= সুনামগঞ্জ
  4. ছিল= সিলেট

সিলেট বিভাগ এর জেলাগুলোর বিখ্যাত ঐতিহ্য ও পরিচিতি

  1. সিলেট : কমলালেবু, চা এবং সাতকড়ার আচার, শাহজালালের মাজার, তবে সিলেট এক সময় বেতের জন্য বিখ্যাত ছিল
  2. হবিগঞ্জ: সাদা/সিলিকা বালু
  3. মৌলভীবাজার: ম্যানেজার স্টোরের রসগোল্লা
  4. সুনামগঞ্জ:পাথর শিল্প, মৎস্য, ধান, সিমেন্ট শিল্প

খুলনা বিভাগ

  1. বাগেরহাট
  2. চুয়াডাঙ্গা
  3. যশোর
  4. ঝিনাইদহ
  5. খুলনা
  6. কুষ্টিয়া
  7. মাগুরা
  8. মেহেরপুর
  9. নড়াইল
  10. সাতক্ষীরা

সূত্র অনুসারে খুলনা বিভাগ এর জেলাগুলোর নাম

সূত্রঃ মা মেয়ে ঝিয়ে সাত বাঘ খুন করে নড়াইয়া যশোরের ডাঙ্গায় ফেলল

  1. মা= মাগুরা
  2. মেয়ে= মেহেরপুর
  3. ঝিয়ে= ঝিনাইদহ
  4. সাত= সাতক্ষীরা
  5. বাঘ= বাঘেরহাট
  6. খুন= খুলনা
  7. করে = কুষ্টিয়া
  8. নড়াইয়া= নড়াইল
  9. যশোরের = যশোর
  10. ডাঙ্গায়= চুয়াডাঙ্গা

খুলনা বিভাগ এর জেলাগুলোর বিখ্যাত ঐতিহ্য ও পরিচিতি

  1. খুলনা: গলদা চিংড়ি নারিকেল, সন্দেশ, গলদা চিংড়ি ও সুন্দরবনের জন্য সর্বাধিক বিখ্যাত
  2. বাগেরহাট: চিংড়ি, সুপারি, বিশেষ করে এ শহরটি মসজিদের জন্য বিখ্যাত
  3. চুয়াডাঙ্গা: পান, তামাক এবং ভুট্টা
  4. যশোর: খই, খেজুর গুড়, জামতলার মিষ্টি
  5. ঝিনাইদহ: ধান, পাট, গম, সরিষা, রসুন
  6. কুষ্টিয়া: তিলের খাজা এবং কুলফি আইসক্রিম হার্ডিঞ্জ ব্রিজ, অশোক মিষ্টান্ন ভান্ডার কিংবা মৌবনের রসমালাই আর সাদা দই, কুমারখালীর রমেশের রশগোল্লা ইত্যাদি
  7. মাগুরা: রসমালাই, মাগুরা খাসি পাতায় চাষ করা মাগুরা চা এবং পুঁইশাক চাষের জন্য। এছাড়াও মাগুরা জেলায় দেশের সবচেয়ে বড় হাঁস উৎপাদন করা হয় এবং হাঁস মাংসের জন্য বিখ্যাত
  8. মেহেরপুর: মিষ্টি সাবিত্রি এবং রসকদম্ব
  9. নড়াইল: পেড়া সন্দেশ, খেজুর গুড় এবং খেজুর রস
  10. সাতক্ষীরা: সন্দেশ, সুন্দরবন, মায়ি চম্পার দরগা, তেঁতুলিয়া জামে মসজিদ, যিশুর গির্জা, মান্দারবাড়িয়া সমুদ্রসৈকত, মায়ের মন্দির, নলতা শরীফ, দেবহাটা থানা

বরিশাল বিভাগ

  1. বরগুনা
  2. বরিশাল
  3. ভোলা
  4. ঝালকাঠি
  5. পটুয়াখালী
  6. পিরোজপুর

সূত্র অনুসারে বরিশাল বিভাগ এর জেলাগুলোর নাম

সূত্রঃ পপির বর ঝাল ভালবাসে

  1. প=পটুয়াখালী
  2. পি=পিরোজপুর
  3. র= বরিশাল
  4. বর= বরগুনা
  5. ঝাল= ঝালকাঠি
  6. ভালবাসে= ভোলা

বরিশাল বিভাগ এর জেলাগুলোর বিখ্যাত ঐতিহ্য ও পরিচিতি

  1. বরিশাল: আমড়া, খাদ্যশস্য, দেশের অন্যতম প্রাচীন, দ্বিতীয় বৃহত্তম ও গুরুত্বপূর্ণ একটি নদীবন্দর, মনপুরা
  2. বরগুনা: সুপারি ও নারিকেল এর জন্য বিখ্যাত
  3. ভোলা: নারিকেল এবং মহিষের দুধের দই
  4. ঝালকাঠি: আটা, পেয়ারা ও শীতল পাটি
  5. পটুয়াখালী: পটুয়াখালী জেলার খাল-বিল, পুকুর, নালা, নিম্নভূমি গুলো মৎস্য সম্পদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই জেলার নদী মোহনাগুলো ইলিশ মাছের জন্য বিখ্যাত
  6. পিরোজপুর: পেয়ারা, নারিকেল, সুপারি, আমড়া

রংপুর বিভাগ

  1. দিনাজপুর
  2. গাইবান্ধা
  3. কুড়িগ্রাম
  4. লালমনিরহাট
  5. নীলফামারী
  6. পঞ্চগড়
  7. রংপুর
  8. ঠাকুরগাঁও

সূত্র অনুসারে রংপুর বিভাগ এর জেলাগুলোর নাম

সূত্রঃ পঞ্চ ঠাকুর লাল নীল রংয়ের কুড়িটি গাই দিল

  1. পঞ্চ= পঞ্চগড়
  2. ঠাকুর= ঠাকুরগাও
  3. লাল= লালমণীরহাট
  4. নীল= নীলফামারী
  5. রংয়ের= রংপুর
  6. কুড়িটি= কুড়িগ্রাম
  7. গাই= গাইবান্ধা
  8. দিল= দিনাজপুর

রংপুর বিভাগ এর জেলাগুলোর বিখ্যাত ঐতিহ্য ও পরিচিতি

  1. রংপুর: তামাক এবং ইক্ষু, তবে রংপুরে বর্তমানে প্রচুর পরিমাণ ধান, পাট, আলু ও হাড়িভাঙ্গা আম উৎপাদিত হয়
  2. দিনাজপুর: লিচু, কাটারিভোগ চাল, চিড়া এবং পাপড়ের জন্য বিখ্যাত
  3. গাইবান্ধা:  রসমঞ্জরী
  4. কুড়িগ্রাম: ধান, পাট, তামাক ভাওয়াইয়া গান
  5. লালমনিরহাট: নুরি পাথর ও তামাক এর জন্য বিখ্যাত
  6. নীলফামারী: ধর্মপালের গড়,তিস্তা ব্যারেজ ও সেচ প্রকল্প, ডিমলা ফরেস্ট, কুন্দুপুকুর মাজার, হযরত শাহ কলন্দর মাজার, হরিশচন্দ্রের পাঠ, ময়নামতির দূর্গ, ভীমের মায়ের চুলা,চীনা মসজিদ, তামাক ইত্যাদি
  7. পঞ্চগড়: নুরি পাথর, চা পাতা, ইদানিং আমের জন্য ও বিক্ষাত
  8. ঠাকুরগাঁও: তরমুজ, বিস্কুট ফ্যাক্টরী, সাবান ফ্যাক্টরী, প্লাস্টিক কারখানা, ফ্লাওয়ার মিল এবং জুট মিল উল্লেখযোগ্য

ময়মনসিংহ বিভাগ

  1. ফতুল্লা
  2. জামালপুর
  3. কিশোরগঞ্জ
  4. ময়মনসিংহ
  5. নেত্রকোণা
  6. শেরপুর

সূত্র অনুসারে ময়মনসিংহ বিভাগ এর জেলাগুলোর নাম

সূত্রঃ নেত্রকোনার জাম সেরা

  1. নেত্রকোনার= নেত্রকোনা
  2. জা= জামালপুর
  3. ম= ময়মনসিংহ
  4. সেরা= শেরপুর

ময়মনসিংহ বিভাগ এর জেলাগুলোর বিখ্যাত ঐতিহ্য ও পরিচিতি

  1. ময়মনসিংহ: মুক্তা গাছার মন্ডা, ময়মনসিংহ জেলা মৈমনসিংহ গীতিকা, মহুয়া, মলুয়া, দেওয়ানা মদিনা, চন্দ্রাবতী, কবিকঙ্ক, দীনেশচন্দ্র সেন এবং মুক্তাগাছার মন্ডার জন্য বিখ্যাত
  2. ফতুল্লা:  বাংলাদেশের প্রধানতম লবণ কারখানা ও নির্মাণ সামগ্রীর পাইকারী বাজারের জন্য ফতুল্লা বিখ্যাত
  3. জামালপুর: ছানার পোলাও, ছানার পায়েস এবং বুড়ির দোকানের রসমালাই
  4. কিশোরগঞ্জ: বালিশ মিষ্টি, অষ্টগ্রামের সাদা পনির, লালডিঙ্গি পান এবং বিভিন্ন প্রকার পিঠা মণ্ডা মিঠাই এর জন্য বিখ্যাত কিশোরগঞ্জ
  5. নেত্রকোণা: বালিশ মিষ্টি
  6. শেরপুর: ছানার পায়েস ও ছানার চপ,  অনুরাধার দই, গজনী অবকাশ কেন্দ্র, মধুটিলা ইকোপার্ক, শের আলী গাজীর মাজার, জরিপ শাহ এর মাজার ইত্যাদি

স্বায়ত্তশাসিত সিটি কর্পোরেশন 

  1. গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন
  2. ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন
  3. ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন

বাংলাদেশের বৃহত্তর জেলাগুলোর তালিকা

বাংলাদেশের বৃহত্তর জেলা গুলোর তালিকা সম্পর্কে অনেকে জানতে চান। এখন আপনি বাংলাদেশের সকল বৃহত্তর জেলাগুলোর তালিকা নিচে দেখতে পারবেন সঠিক ভাবে।

আরো পড়ুনঃ কিডনি কোথায় বিক্রি হয়  একটা কিডনির দাম কত 

  1. বৃহত্তর ঢাকা= ঢাকা, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ, মানিকগঞ্জ ও নরসিংদী।
  2. বৃহত্তর চট্টগ্রাম= চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার।
  3. বৃহত্তর রাজশাহী= রাজশাহী, নাটোর, নওগাঁ ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ।
  4. বৃহত্তর খুলনা= খুলনা, বাগেরহাট ও সাতক্ষীরা।
  5. বৃহত্তর রংপুর= রংপুর, কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট, নীলফামারী ও গাইবান্ধা।
  6. বৃহত্তর সিলেট= সিলেট, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ ও মৌলভীবাজার।
  7. পার্বত্য চট্টগ্রাম= রাঙামাটি,বান্দরবান ও খাগড়াছড়ি।
  8. বৃহত্তর ময়মনসিংহ= ময়মনসিংহ, নেত্রকোনা, শেরপুর,টাঙ্গাইল, জামালপুর ও কিশোরগঞ্জ।
  9. বৃহত্তর দিনাজপুর= দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও ও পঞ্চগড়।
  10. বৃহত্তর যশোর= যশোর,ঝিনাইদহ,মাগুরা ও নড়াইল।
  11. বৃহত্তর কুষ্টিয়া= কুষ্টিয়া, চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুর।
  12. বৃহত্তর ফরিদপুর= ফরিদপুর, রাজবাড়ী, গোপালগঞ্জ, মাদারীপুর ও শরীয়তপুর।
  13. বৃহত্তর বগুড়া= বগুড়া ও জয়পুরহাট।
  14. বৃহত্তর পাবনা= পাবনা ও সিরাজগঞ্জ।
  15. বৃহত্তর বরিশাল= বরিশাল,পটুয়াখালী, বরগুনা, ঝালকাঠি, পিরোজপুর ও ভোলা।
  16. বৃহত্তর কুমিল্লা= কুমিল্লা, চাঁদপুর ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া।
  17. বৃহত্তর নোয়াখালী= নোয়াখালী,লক্ষ্মীপুর ও ফেনী।

কোন জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত

কোন জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত সে সম্পর্কে সঠিক তথ্যগুলো জানবো এখন। আমরা জানি যে বাংলাদেশ ষড়ঋতুর দেশ। বাংলাদেশের ৬টি ঋতুতে ১২টি মাস হয় আর এই ১২টি মাসে একেক সময় একেক রকমের ফল-ফলাদি গাছে পাওয়া যায়।

এছাড়াও বাজারে রয়েছে অসংখ্য খাদ্য সামগ্রী যেগুলো এক এক জেলা ভেদে একেক বিভাগ ভেদে ভিন্ন ভিন্ন হয়ে থাকে। তাই বাংলাদেশের কোন জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত সে সম্পর্কে অনেকেই জানতে চান। তাহলে চলুন এখন আমি সংক্ষিপ্ত আকারে বাংলাদেশের কোন জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত সেটা তুলে ধরি।

আমরা যেহেতু ইতিমধ্যে জেনেছি যে বাংলাদেশের ৮টি বিভাগের মধ্যে জেলা রয়েছে ৬৪ টি। তবে ৬৪টি জেলায় কিন্তু বিখ্যাত না। আমরা রিচার্জ করে এবং বাংলাদেশের তথ্য অনুসারে মোট ৫৬ টি জেলাকে বিখ্যাত হিসেবে পেয়েছি। তাহলে চলুন এখন কোন জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত জেনে নিনঃ

  1. রাজশাহী – আম, আলু, তিলের খাজা, পান, সিল্ক।
  2. বগুড়া – দই, কটকটি।
  3. নাটোর – কাঁচাগোল্লা।
  4. চট্টগ্রাম – মেজবান, শুটকি।
  5. কুষ্টিয়া – তিলের খাজা, কুলফি, আইসক্রিম।
  6. পিরোজপুর – পেয়ারা, ডাব, আমড়া।
  7. কিশোরগঞ্জ – বালিশ মিষ্টি, নকশি, পিঠা।
  8. কুমিল্লা – রসমালাই, খদ্দর (খাদী)।
  9. কক্সবাজার – মিষ্টিপান।
  10. চাঁদপুর – ইলিশ।
  11. চাঁপাইনবাবগঞ্জ – আম,
  12. শিবগঞ্জের – চমচম, কলাইয়ের রুটি।
  13. চুয়াডাঙ্গা – পান, ভুট্টা।
  14. জামালপুর – ছানার পোলাও, ছানার পায়েস।
  15. ঝালকাঠী – লবন, আটা।
  16. ঝিনাইদাহ – হরি ও ম্যানেজারের ধান।
  17. টাঙ্গাইল – চমচম।
  18. খাগড়াছড়ি – হলুদ।
  19. খুলনা – সন্দেশ, নারিকেল, গলদা, চিংড়ি।
  20. গাইবান্ধা – রসমঞ্জরী।
  21. গাজীপুর – কাঁঠাল, পেয়ারা।
  22. গোপালগঞ্জ -বাদাম।
  23. ঠাকুরগাঁও – সূর্য্যপুরী আম।
  24. দিনাজপুর – লিচু, পাপড়, চিড়া, শীদল।
  25.  ঢাকা – বাকরখানি, হাজীর/নান্নার, বিরিয়ানী।
  26. নওগাঁ – প্যারা সন্দেশ, চাল।
  27. নরসিংদী – সাগর কলা।
  28. নড়াইল – পেড়ো সন্দেশ, খেজুর গুড়, খেজুর রস।
  29. নেত্রকোনা – বালিশ মিষ্টি।
  30. নীলফামারী – ডোমারের সন্দেশ।
  31. নোয়াখালী – নারকেল নাড়ু়, ম্যাড়া পিঠা।
  32. পাবনা – প্যারডাইসের প্যারা, সন্দেশ, ঘি।
  33. ফরিদপুর – খেজুরের গুড়।
  34. ফেনী – মহিশের দুধের ঘি, খন্ডলের মিষ্টি।
  35. বরিশাল – আমড়া।
  36. বাগেরহাট – চিংড়ি, সুপারি।
  37.  বান্দরবন – হিল জুস।
  38. ব্রাহ্মণবাড়িয়া – তালের বড়া, ছানামুখী, রসমালাই।
  39. ভোলা – মহিষের দুধের দই, নারিকেল।
  40. ময়মনসিংহ – মুক্তা গাছার মন্ডা।
  41. মাগুরা – রসমালাই।
  42. মাদারীপুর – খেজুর গুড়, রসগোল্লা।
  43. মানিকগঞ্জ – খেজুর গুড়।
  44. মুন্সীগঞ্জ -ভাগ্যকুলের মিষ্টি।
  45. মেহেরপুর – মিষ্টি সাবিত্রি, রসকদম্ব।
  46. মৌলভীবাজার – ম্যানেজার স্টোরের চ্যাপ্টা রসগোল্লা।
  47.  যশোর – খই, খেজুর গুড়, জামতলার মিষ্টি।
  48. রংপুর – আখ (ইক্ষু)।
  49. রাঙ্গামাটি – আনারস, কাঠাল, কলা, জুম, রেস্তোরার বাশেঁর তৈরি খাবার।
  50. রাজবাড়ী – চমচম, খেজুরের গুড়।
  51. লক্ষ্মীপুর – সুপারি।
  52. শেরপুর – ছানার, পায়েস, ছানার চপ।
  53. সাতক্ষীরা – সন্দেশ।
  54. সিরাজগঞ্জ – পানিতোয়া, ধানসিড়িঁর দই।
  55. নারায়ণগঞ- আমের আচার।
  56. সিলেট – সাতকড়ার আচার, কমলালেবু, পাঁলেয়ার চা।

বাংলাদেশের ৬৪ জেলার নাম ও প্রতিষ্ঠিত সাল

বাংলাদেশের ৬৪ জেলার নাম ও প্রতিষ্ঠিত সাল সম্পর্কে এখন আপনারা জানতে পারবেন। অনেকেই বাংলাদেশের 64 জেলার নাম এবং কোন জেলা কত সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে সে সম্পর্কে জানতে চান। তাই আজকে আমি আপনাদেরকে জানিয়ে দিব বাংলাদেশ সুপ্রিয় জেলা নাম এবং সঠিক প্রতিষ্ঠিত সাল। তাহলে চলুন এখন জেনে নিন।

  1. ঢাকা = ১৭৭২ সাল
  2. মুন্সীগঞ্জ = ১৯৮৪ সাল
  3. নরসিংদী = ১৯৮৪ সাল
  4. নারায়ণগঞ্জ = ১৯৮৪ সাল
  5. মানিকগঞ্জ = ১৯৮৪ সাল
  6. ময়মনসিংহ = ১৭৮৭ সাল
  7. গাজীপুর = ১৯৮৪ সাল
  8. কিশোরগঞ্জ = ১৯৮৪ সাল
  9. জামালপুর = ১৯৮৪ সাল
  10. শেরপুর = ১৯৮৪ সাল
  11. নেত্রকোণা = ১৯৮৪ সাল
  12. টাঙ্গাইল = ১৯৬৯ সাল
  13. ফরিদপুর = ১৮১৫ সাল
  14. গোপালগঞ্জ = ১৯৮৪ সাল
  15. শরীয়তপুর = ১৯৮৪ সাল
  16. মাদারীপুর = ১৯৮৪ সাল
  17. রাজবাড়ি = ১৯৮৪ সাল
  18. চট্টগ্রাম = ১৬৬৬ সাল
  19. কক্সবাজার = ১৯৮৪ সাল
  20. বান্দবান = ১৯৮১ সাল
  21. রাঙামাটি = ১৮৬০ সাল
  22. খাগড়াছড়ি = ১৯৮৪ সাল
  23. ফেনী = ১৯৮৪ সাল
  24. ব্রাহ্মণবাড়িয়া = ১৯৮৪ সাল
  25. চাঁদপুর = ১৯৮৪ সাল
  26. রাজশাহী = ১৭৭২ সাল
  27. নাটোর = ১৯৮৪ সাল
  28. নওগাঁ = ১৯৮৪ সাল
  29. নওয়াবগঞ্জ = ১৯৮৪ সাল
  30. বগুড়া = ১৮২১ সাল
  31. পাবনা = ১৮৩২ সাল
  32. সিরাজগঞ্জ = ১৯৮৪ সাল
  33. জয়পুরহাট = ১৯৮৪ সাল
  34. রংপুর = ১৮৭৭ সাল
  35. লালমনিরহাট = ১৯৮৪ সাল
  36. কুড়িগ্রাম = ১৯৮৪ সাল
  37. নীলফামারী = ১৯৮৪ সাল
  38. গাইবান্ধা = ১৯৮৪ সালে
  39. পঞ্চগড় = ১৯৮০ সাল
  40. দিনাজপুর = ১৭৮৬ সাল
  41. খুলনা = ১৮৮২ সাল
  42. ঠাকুরগাঁও = ১৯৮৪ সাল
  43. সাতক্ষীরা = ১৯৮৪ সাল
  44. বাগেরহাট = ১৯৮৪ সাল
  45. যশোর = ১৭৮১ সাল
  46. ঝিনাইদহ = ১৯৮৪ সাল
  47. নড়াইল = ১৯৮৪ সাল
  48. মাগুরা = ১৯৮৪ সাল
  49. কুষ্টিয়া = ১৮৬৩ সাল
  50. চূয়াডাঙ্গা = ১৯৮৪ সাল
  51. মেহেরপুর = ১৯৮৪ সাল
  52. বরিশাল = ১৭৯৭ সাল
  53. ঝালকাঠি = ১৯৮৪ সাল
  54. পিরোজপুর = ১৯৮৪ সাল
  55. পটুয়াখালী = ১৯৮৪ সাল
  56. বরগুনা = ১৯৮৪ সাল
  57. ভোলা = ১৯৮০ সাল
  58. সিলেট = ১৭৭৫ সাল
  59. হবিগঞ্জ = ১৯৮৪ সাল
  60. মৌলভীবাজার = ১৯৮৪ সাল
  61. নোয়াখালী = ১৮২১ সালে
  62. লক্ষ্মীপুর = ১৯৮৪ সাল
  63. কুমিল্লা = ১৭৯০ সাল
  64. চাঁদপুর = ১৯৮৪ সাল

Assalamu Alaikum! Hello world, I am Md. Hafijul Islam (mhihafijul). I am a Bangladeshi SEO expert. And I have been writing high quality Bengali content for a long time. I can write very nice SEO friendly articles. Along with that we do onpage seo, offpage seo and technical seo in proper guidelines. For which every article I write ranks on Google's fast page.

Sharing Is Caring:

Leave a Comment

error: Content is protected !!